বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেল বাংলাদেশ!

ব্রাজিল আর্জেন্টিনা ফ্যান 1
ad

রিয়াজুল ইসলাম শুভ: শিরোনাম দেখে অনেকের নিশ্চয়ই চোখ কপালে উঠে গেছে এই ভেবে যে বাংলাদেশ আবার বিশ্বকাপ খেলল কবে যে বাদ পড়ার প্রসঙ্গ আসছে। হতে পারে বাংলাদেশ বিশ্বকাপ খেলে না, তবে অন্য দেশের তুলনায় এদেশে বিশ্বকাপের উন্মাদনা বিন্দুমাত্র কম নয়। আর এই উন্মাদনা মূলত ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনাকে ঘিরেই। 

এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের দুই ম্যাচ ইতোমধ্যে শেষ হলেও বাকি রয়েছে আরও দুইটি ম্যাচ। এরপর হবে দুইটি সেমিফাইনাল, তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ এবং ফাইনাল ম্যাচ। এখনও বাকি রয়েছে ছয়টি ম্যাচ। কিন্তু তার আগেই শেষ হয়ে গেছে বাঙালীর বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়ে সকল উন্মাদনা। বলতে গেলে বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে গেছে বাংলাদেশ।

যুগ যুগ ধরেই ফুটবল পাগল বাঙালী বিশ্বকাপ ফুটবল শুরুর আগে থেকেই নিজেদের প্রস্তুতি নিতে থাকে। প্রিয় দলের জার্সি কেনা, পতাকা কিনে তা বাড়ির ছাদে, বারান্দায় কিংবা জানালায় টাঙিয়ে দেয়া, পরিচিত মহলে চায়ের কাপে ঝড় তুলে নিজের দলের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণে নিজেকে উজাড় করে দেয়া, বন্ধুদের সমর্থন ভিন্ন হলে খুনসুটিতে মেতে ওঠা এসবই বাঙ্গালীর উন্মাদনার অবিচ্ছেদ্দ অংশ।

তবে এতসব উন্মাদনা এবার খুব দ্রুতই শেষ হয়ে গেছে। কারণ রাশিয়া বিশ্বকাপে বড় দলের দ্রুত বিদায়ের মিছিলটা এবার বেশ দীর্ঘ। ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার সমর্থনকে ঘিরেই গোটা বাঙালী জাতি হয়ে যায় বিভক্ত। মূলত এই দুই দলের বিদায়ের সাথে সাথেই প্রকৃতপক্ষে বাঙালীর বিশ্বকাপ উন্মাদনার অবসান হয়েছে।

ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনাকে ঘিরে অধিকাংশ বাঙালী বিভক্ত হলেও কিছু মানুষের অন্যান্য দলের প্রতিও সমর্থন লক্ষ্য করা যায়। চিরাচরিত দুর্ধর্ষ ফুটবল খেলা চারবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানি, টিকিটাকা খেলে বিশ্বকাপ যেটা স্পেন আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর্তুগালের সমর্থক হাতে গোনা থাকলেও রয়েছে।

এবারের বিশ্বকাপে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন জার্মানির গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ে যাওয়াটা ছিল রীতিমতো বিস্ময়কর এক ঘটনা। স্পেন তাদের গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার পর সেখানে স্বাগতিক রাশিয়ার কাছে টাইব্রেকারে হেরে বিদায় নেয়। আর পর্তুগাল হেরে বসে কাভানি-সুয়ারেজের উরুগুয়ের কাছে। তাতেই এসব দলের হাতে গোনা সমর্থকদের বিশ্বকাপের উন্মাদনা শেষ হয়ে যায়।

তবে আর্জেন্টিনার বিদায়ে বাঙালী জাতির বড় একটি অংশের বিশ্বকাপ উন্মাদনা শেষ হয়ে যায়। দ্বিতীয় রাউন্ডেই তারা বাদ পড়ে যায় উড়ন্ত ফ্রান্সের কাছে হেরে গিয়ে। এরপর বাকি ছিল ব্রাজিল, যারা কোয়ার্টার ফাইনালে গিয়ে আশা বাঁচিয়ে রেখেছিল হেক্সা জয়ের। কিন্তু বেলজিয়ামের গতির ফুটবলের কাছে হেরে তাদেরও বিদায় নিতে হয়, আর সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়ে যায় বাঙালীর বিশ্বকাপ উন্মাদনা।

চার বছর পর আবারও বসবে বিশ্বকাপের আসর। ২০২২ সালে কাতারে বসতে যাওয়া সেই আসরের আগে আবারও উন্মাদনায় মেতে ওঠার অপেক্ষায় বাঙালী। এবারের আসরে অতীতে বিশ্বকাপ জেতা কোনো দল আবারও জিতবে, নাকি নতুন কোনো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আসছে তা সময় বলে দেবে। তবে ঘুরে ফিরে যে ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনাকে নিয়েই উন্মাদনার বিশাল অংশ তৈরি হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

ad