বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রিটিশ বাংলাদেশি রুকসানা

ad

জাগরণ ডেস্কঃ এবার কিক বক্সিংয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ কিক বক্সার রুকসানা বেগম। সুইডিশ চ্যাম্পিয়ন সুজানা স্যালমি জার্ভিকে পাঁচ রাউন্ডের প্রতিটিতে হারিয়ে ‘মুয়ে থাই’ (কিক বক্সিংয়ের একটি বিশেষ ধরণ)বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন খেতাব জিতে নেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এ নারী।

এবারের ম্যায়ো থাই কিংক বক্সিংয়ের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় ইস্ট লন্ডনের হ্যাকনির রাউন্ড চ্যাপলে। গত ২৩ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতায় ম্যায়ো থাইয়ে ৪৮-৫০ কেজি ডিভিশনের বক্সার রুকসানা বেগম বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়ে ২২ ক্যারেট গোল্ডের বেল্ট অর্জন করেন।

বক্সিংয়ে রুকসানার প্রথম সাফল্য আসে ২০০৯ সালে। ব্রিটেন জাতীয় দলের হয়ে ব্যাংককে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড অ্যামেচার কিক বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে তৃতীয় স্থান অর্জন করে আলোচনায় আসেন তিনি। সেই থেকে স্বপ্নের পথচলা শুরু।

২০১১ সালে রুকসানা লাটভিয়ায় আয়োজিত ইউরোপিয়ান ক্লাব কাপে সোনা জেতেন। ২০১১ সালে উজবেকিস্তানে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সুইডেনের সঙ্গে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত খেলেন। আর ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত আইএফএমএ (ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব মুয়ে থাই অ্যামেচার) চ্যাম্পিয়নশিপে তিনি ব্রোঞ্জ জেতেন।

একই বছর তিনি পান মুসলিম ওম্যান ইন স্পোর্ট ফাউন্ডেশন অ্যাওয়ার্ড। পরের বছর ‘এশিয়ান অ্যাচিভার স্পোর্টস পার্সোনালিটি অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হন রুকসানা। লন্ডন অলিম্পিকের মশাল হাতেও ছুটেছেন তিনি। এ ছাড়া ফাইট ফর পিস দাতব্য প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করছেন।

১৯৮৩ সালের ১৫ অক্টোবর ইংল্যান্ডে এক বাংলাদেশি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন রুকসানা বেগম। মা মিনারা বেগম আর বাবা আওলাদ আলীর পরিবারের চার সন্তানের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। ওয়েস্টমিনস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপত্য নিয়ে পড়াশোনা করা রুকসানা বক্সিংয়ের প্রশিক্ষণও দেন। খেলাধুলার বাইরে তিনি একজন সাইন্স টেকনিশিয়ান। ইস্ট লন্ডনের সোয়ানলি সেকেন্ডারি স্কুলে কাজ করেন। এ কাজের পাশাপাশি তিনি বক্সিং প্রশিক্ষণও দেন।

ad