ব্যাটিং বিপর্যয়ে হারের শঙ্কায় প্রোটিয়ারা

amla and de bruin
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশাল লিড নিয়ে বল হাতেও জ্বলে উঠেছে নিউজিল্যান্ডের বোলাররা। কেন উইলিয়ামসনের ১৭৮ রানের ক্লাসিক ইনিংসে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৪৮৯ রানে অলআউট হয়ে ১৭৫ রানের লিড নিয়ে তারা বল হাতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ব্যাটিং বিপর্যয়ে ফেলে দিয়েছে। দিন শেষে প্রোটিয়াদের স্কোর ৫ উইকেটে ৮০ রান। এখনো তারা ৯৫ রানে পিছিয়ে থেকে হারের শঙ্কায় আছে। 

চতুর্থ দিন স্বাগতিকরা শুরু করে ৪ উইকেটে ৩২১ রান নিয়ে। ১৪৮ রানে অপরাজিত থাকা উইলিয়ামসন আজ আরো ৩০ রান যোগ করে মরকেলের শিকার হয়ে আউট হন। দলীয় ৩৯৩ রানে স্যান্টনার বিদায় নেন রাবাদার বলে ডুমিনির হাতে ক্যাচ দিয়ে। সপ্তম উইকেটে ওয়াটলিং এবং গ্র্যান্ডহোম ৪৬ রানের জুটি গড়লে দলের সাড়ে চারশো পেরিয়ে যাওয়া নিশ্চিত হয়ে যায়।

গ্রান্ডহোম নিজের ফিফটি তুলে নিয়ে হেনরির সাথে ৩০ রানের জুটি গড়ে দলের রান বাড়িয়ে নিতে থাকেন। দলীয় ৪৭৭ রানে হেনরি মহারাজের শিকার হলেও গ্রান্ডহোম দলকে পাঁচশোর কাছাকাছি নিয়ে যান। তবে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৫৭ রান করে মরকেলের বলে ডি ককের গ্লাভসে ধরা পড়লে ৪৮৯ রানে থামে কিউইদের ইনিংস।

দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে মরকেল ও রাবাদা ৪টি এবং মহারাজ ২টি উইকেট লাভ করেন।

জবাবে প্রোটিয়ারা তাদের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরু থেকেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েন। ৫৯ রানেই তারা টপ অর্ডারের ৫ উইকেট হারিয়ে বসে। ডি কক এবং ডু প্লেসিস ১৫ রান করে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়লেও বৃষ্টিবিঘ্নিত এই টেস্টে জয়ের ক্ষেত্র প্রস্তুত করে রেখেছে নিউজিল্যান্ড। বৃষ্টি শেষ দিনে বাঁধা না হয়ে দাঁড়ালে স্বাগতিকদের দিকেই ঝুলে থাকবে জয়ের পাল্লা।

কিউইদের পক্ষে জিতান প্যাটেল ২টি এবং হেনরি ও গ্র্যান্ডহোম ১টি করে উইকেট নেন।

ad