রোনালদোর শেষ মুহূর্তের পেনাল্টিতে জুভেন্টাসের হতাশা

Ronaldo, Penalty, Juventus, Frustration,
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: অবিশ্বাস্য এক প্রত্যাবর্তনের সকল আয়োজন করে রেখেছিল জুভেন্টাস। তবে দ্বিতীয়ার্ধের ইনজুরি সময়ে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পেনাল্টি গোলে ইতালিয়ান দলটিকে হতাশায় ডুবিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমি ফাইনালে উঠেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

ম্যাচটি হেরেছে রিয়াল ৩-১ গোলে। তবে প্রথম লেগ ৩-০ গোলে জেতায় দুই লেগ মিলিয়ে ৪-৩ গোলে এগিয়ে থাকায় শেষ চারে যাওয়া নিশ্চিত করেছে জিনেদিন জিদানের দল।

বুধবার (১১ এপ্রিল) সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে নাটকীয়তায় পরিপূর্ণ ম্যাচে চ্যাম্পিয়নস লীগে টানা ১১ ম্যাচে গোল করলেন রোনালদো। পেনাল্টির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ কড়া ভাষায় করায় লাল কার্ড দেখেছেন জিয়ানলুইজি বুফন।

ম্যাচ শুরুর মাত্র ২ মিনিটের মাথায় সামি খেদিরার ক্রস থেকে হেডে লক্ষ্যভেদ করে দলকে লিড এনে দেন মারিও মানজুকিচ। এরপর ৩৭ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন তিনি। ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে জুভরা।

দ্বিতীয়ার্ধে এসেই আবার বারবার গোলের সুযোগ তৈরি করে তারা। ৬০ মিনিটের মাথায় তৃতীয় গোল করে ইতিহাস লেখার পথে হাঁটছিল জুভেন্টাস। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর হলো না।

দুই লেগ মিলিয়ে তখন ৩-৩ সমতায় থাকা ম্যাচ অতিরিক্ত সময়ের একেবারে শেষমুহূর্তে, বাড়তি ৩০ মিনিটে গড়ানোর অপেক্ষাও কাছাকাছি। তখনই ম্যাচের শেষ মুহূর্তে এসে নাটকীয়তার দেখা পান রিয়াল–ভক্তরা।

ম্যাচ শেষে যোগ হওয়া মিনিটে (৯৩তম মিনিটে) বুফনের সামনে বল পান রিয়ালের লুকাস ভাসকেজ। তাকে পেছন থেকে ফাউল করে বসেন মেধি বেনেশিয়া। পেনাল্টির ফাঁদে পড়ে জুভেন্টাস। সে সময় রেফারির সঙ্গে তর্ক করায় লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয় বুফনকে। পরে টেলিভিশন পর্দায় দেখা গেছে, রেফারির সিদ্ধান্তই ঠিক ছিল। ম্যাচের অমন মুহূর্তে ওই সিদ্ধান্ত ছিল সাহসীও।

পরে পেনাল্টি শটে গোল করেন রোনালদো। চ্যাম্পিয়নস লীগে এ নিয়ে টানা ১১ ম্যাচে গোল করেন রিয়াল সেনা। চ্যাম্পিয়নস লীগে তার ১৫০তম ম্যাচের উদযাপনটা মনে রাখার মতো করেই হবে।

ad