শ্রীলংকার বিপক্ষে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ

Tigers, goal, 222 runs,
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: খর্বশক্তির ভারতের বিপক্ষে ব্যাটিং ব্যর্থতার খেসারত দিয়ে ৬ উইকেটের হার দিয়ে নিদাহাস ট্রফির মিশন শুরু করেছে বাংলাদেশ। টাইগার ব্যাটসম্যানদের ব্যাট তো হাঁসছেই না, উল্টো আগের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৫৭টি ডট বল খেলেছে তারা, যার পরিণাম বাজে হার। তাই নিজেদের এই অবস্থা থেকে বের হওয়ার জন্য শ্রীলংকার বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো আবশ্যক বাংলাদেশের। তা পেতে হলে সেরা একাদশকেই মাঠে নামাতে হবে।

অনেকদিন ধরেই কথা বলছে না তামিমের ব্যাট। তার উপর আবার প্রস্তুতি ম্যাচসহ প্রথম টুয়েন্টিতেও খারাপ করেছেন ওপেনার সৌম্য সরকার। তবে যে পাঁচজন ব্যাটসম্যান গত ম্যাচে দুই অংকের ইনিংস খেলেছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন তামিম আর সৌম্য।

তামিম আউট হন ১৫ রান করে আর ২ রানে জীবন পাওয়া সৌম্য আউট হন ১২ বলে ১৪ রান করে। তারপরেও তামিমের অভিজ্ঞতা আর অফ ফর্মে যাওয়া সৌম্যর ওপরেও টিম ম্যানেজমেন্ট আস্থা রাখবে তা নিশ্চিত কারণ গত ম্যাচে টেনেটুনে ১০০ এর ওপরে স্ট্রাইকরেট থাকা মাত্র চার ব্যাটসম্যানের একজন হলেন সৌম্য। তাছাড়া তার অতীতের কিছু টি-২০ ম্যাচের পারফর্মেন্সও বিবেচনায় থাকবে।

প্রস্তুতি ম্যাচে শ্রীলংকা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে ১৮ বলে ৪০ রান করেছিলেন লিটন। তবে মূল টুর্নামেন্টে ভারতের বিপক্ষে সেইভাবে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে না পারলেও তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ৩০ বলে ৩৪ রানের ইনিংসটি ব্যক্তিগত সর্বাধিক রানের ইনিংস। তাই নিঃসন্দেহে তার একাদশে থাকা নিয়ে সংশয় নেই।

আগের ম্যাচে ১৪ বলে ১৮ রান করা মুশফিক তো থাকছেনই। উইকেটের পেছনেও সিনিয়র ক্রিকেটার হিসাবে তার বাড়তি একটা দায়িত্ব রয়েছে। প্রস্তুতি ম্যাচে ৪৪ বলে ৬৫ দারুণ ইনিংসের মতো আজকেও এমন একটি ইনিংস খেলতে পারলে তা দলের জন্যই মঙ্গলজনক হবে।

পাঁচ নম্বরে এই সিরিজের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রিয়াদ গত ম্যাচে ৮ বলে মাত্র ১ রান করে আউট হওয়ায় নিজেও একটা অস্বস্তির ভেতর দিয়ে যাচ্ছেন তা গত ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি লুকাননি। সাইলেন্ট কিলারকে তাই সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আজ ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতেই হবে।

গত ম্যাচে ২৬ বলে ৩০ রান করে দ্বিতীয় সর্বাধিক রান করা সাব্বির যে ওই ইনিংস খেলে আজকের ম্যাচের একাদশে থাকা নিশ্চিত করেছেন তা বলা বাহুল্য। টানা ব্যর্থ হওয়ার পর আগের ম্যাচে তার একাদশে থাকা নিয়ে সমালোচনা আপাতত তিনি বন্ধ করতে পারলেও সেই মুখ বন্ধ রাখাটা স্থায়ী করতে সাব্বিরকে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলতে হবে, যার আসলে বিকল্প নেই।

ব্যাট হাতে ব্যর্থ মিরাজ আগের ম্যাচে মাত্র ৩ রান করলেও বল হাতে ছিলেন নিয়ন্ত্রিত। ৪ ওভার বল করে উইকেট না পেলেও রান দিয়েছেন মাত্র ২১। তাই মিরাজ আজকের একাদশে থাকবেন তা নিশ্চিত করে বলাই যায়।

জেনুইন স্পিনার হিসেবে আগের ম্যাচে নাজমুল ইসলাম অপু ২ ওভারে ১৫ রান দিয়ে তেমন সুবিধা করতে পারেননি। তবে ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে ২ টি-২০ ম্যাচে ভালো বোলিং করায় আজও তিনি বিবেচনায় থাকবেন এমনটাই আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

রইল বাকি ৩ পেসার। রুবেল আগের ম্যাচে অসাধারণ বোলিং করেছেন। ৩ ওভার ৪ বলে ২৪ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। মুস্তাফিজ ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে গড়পড়তা বোলিং করেছেন। তাসকিন ১ উইকেট পেলেও ৩ ওভারে ২৮ রান দিয়ে খরুচে ছিলেন। তবে প্রস্তুতি ম্যাচে তার ৩ ওভারে ১৯ রান দিয়ে ২ উইকেট পাওয়া পারফরমেন্সের জন্য আজ তিনি টিকে যেতে পারেন একাদশে। রাহী আর রনি প্রস্তুতি ম্যাচে তেমন সুবিধা করতে পারেনি।

শ্রীলংকার বিপক্ষে হেরে যাওয়া ম্যাচের একাদশ নিয়ে খেলতে নেমে বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ে ফিরেছে ভারত। এখন বাংলাদেশ আগের হেরে ম্যাচের একাদশ ধরে রাখবে কিনা আর ধরে রাখলেও জয় পাবে কিনা তা সময় বলে দেবে।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ ও নাজমুল ইসলাম অপু।

ad