রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ছে যারা, আসছে যারা!

real madrid
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: লা লিগায় ব্যর্থতার দরুণ এবার বেশকিছু খেলোয়াড়কে ছেড়ে নতুন করে দল সাজানোর পরিকল্পনা করেছেন রিয়াল মালিক ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। এ জন্য তারা একটি পরিকল্পনাও হাতে নিয়েছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী নতুন প্লেয়ারদের দলে ভেড়াতে ছেড়ে দেয়া হবে বর্তমান দলে থাকা বেশকিছু তারকাকে। এর মানে পরবর্তী মৌসুমে নতুন রূপে দেখা দেবে রিয়াল মাদ্রিদ।

আগামী মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের টার্গেট যারা:

নেইমার জুনিয়র: পিএসজির এই তারকাকে দলে ভেড়াতে উঠেপড়ে লেগেছে রিয়াল মাদ্রিদ। বেশ কয়েকবার নেইমার ও তার এজেন্টের সাথে যোগাযোগও করেছে রিয়ালের মালিক পেরেজ। শোনা গিয়েছিল তাদের সাথে একটি চুক্তিও হয়েছে।

তবে নেইমারকে কোনোমতেই ছাড়তে রাজি নয় পিএসজি। তার ওপর আবার রোনালদোর সাথে খেলতে নারাজ নেইমার। তবুও আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন পেরেজ। এমনকি নেইমারের জন্য ৪০০ মিলিয়ন ডলার খরচ করতে রাজি রিয়াল। এর কারণ নেইমারই হচ্ছে তাদের প্রধান টার্গেট। বলতে গেলে তাদের ভবিষ্যত।

মোহাম্মদ সালাহ: লিভারপুলের এই মিশরীয় তারকার বছরটা যাচ্ছে স্বপ্নের মতো। এ মৌসুমে ৪৫ গোল করা সালাহকে টার্গেটে রেখেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইতোমধ্যেই তার এজেন্ট ও লিভারপুলের সাথে যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছে তারা। যদিও লিভারপুল তাকে ছাড়তে নারাজ। তবে তার বাই আউট ক্লজ ধরা হয়েছে ২০০ মিলিয়ন ডলার। এই দাম পরিশোধ করলেই তাকে দলে ভেড়াতে পারবে তারা। এ জন্য অবশ্য বার্সেলোনা ও পিএসজির সাথে লড়াই করতে হবে তাদের।

মোরাতা: রিয়ালের পরিকল্পনায় আছেন এক মৌসুম আগেও রিয়ালে খেলা মোরাতাও। চেলসির এই খেলোয়াড়কে দলে ভেড়াতে তার এজেন্টের সাথেও যোগাযোগ শুরু করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইংলিশ মিডিয়ার খবর অনুযায়ী চেলসিতে খুব একটা সুখে নেই মোরাতা। দারুণ শুরু করলেও এখন নিয়মিত দলে জায়গা হচ্ছে না এই তরুণ উইঙ্গারের। তিনিও নাকি চেলসি ছাড়ার কথা ভাবছেন। আর রিয়াল যদি তাকে নিতে আগ্রহী হয় তাহলে তিনি রিয়ালেই যাবেন।

রহিম স্টার্লিং: দ্যা সান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, স্টার্লিংকে কিনতে সিটির সাথে যোগাযোগ শুরু করেছে রিয়াল। আগামী গ্রীষ্মের দলবদলে তাকে কিনতে আগ্রহী তারা। এ জন্য তারা ছেড়ে দিতে পারেন ইস্কোকে।

ম্যানসিটির হয়ে এ মৌসুমে ২০ গোল করা স্টার্লিংয়ের জন্য রিয়াল ১০০ মিলিয়ন ডলার খরচ করতে রাজি। যদিও স্টার্লিংয়ের চুক্তিটা ম্যানসিটির সাথে আরও দুই বছর আছে। এরপরও তাকেই টার্গেট করবে মাদ্রিদ।

রবার্ট লেভানডস্কি: বায়ার্নের এই তারকার প্রতিনিধির সাথে একাধিক বৈঠক করেছে রিয়াল। ওই বৈঠকে রিয়ালের সাথে সমঝোতা হয়েছে লেভানডস্কির প্রতিনিধির। সব ঠিকঠাক থাকলে শিগগিরই তাদের মধ্যে একটি চুক্তি হবে। আর আগামী গ্রীষ্মের দলবদলে রিয়ালের হয়ে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হবেন লেভানডস্কি। চুক্তিটা ২-৩ বছরের হতে পারে।

হ্যারি কেইন: গত শীতের দলবদলে কেইনকে দলে ভেড়াতে বেশ চেষ্টা করেছিল রিয়াল। তবে তাদের সে চেষ্টা সফল হয়নি। টটেনহ্যাম ছাড়েনি তাদের সেরা খেলোয়াড়কে। এবার গ্রীষ্মের দলবদলেও এই তারকাকে দলে ভেড়াতে প্রস্তুত রিয়াল। শোনা যাচ্ছে কেইনের জন্য টটেনহ্যামকে বিশাল অঙ্কের টাকার অফার দেবে মাদ্রিদ। সেটা হতে পারে ১৫০ মিলিয়ন।

ডেভিড ডি গিয়া: স্পেন জাতীয় দলের এই গোলরক্ষক এখন খেলছেন ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডে। তাকে বাগে আনার জন্য অনেকদিন ধরেই চেষ্টা চালাচ্ছিল রিয়াল। তবে রিয়ালে আসতে রাজি ছিলেন না তিনি। তবে এখন শোনা যাচ্ছে তিনি রিয়ালে আসতে চান। হয়তো আগামী মৌসুমেই তাকে দেখা যাবে রিয়ালের জার্সিতে।

আলভারো অদ্রিজোলা: স্পেনের ২২ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডার এখন খেলছেন রিয়াল সোসিয়াদেদে। তাকে দলে ভেড়ানোর জন্য ৪০ মিলিয়ন অফার করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। আর তাতে তিনি রাজি আছেন বলেও শোনা যাচ্ছে।

ফাবিয়ান রুইজ: এবারের লা লিগার অন্যতম সেরা মিডফিল্ডারের খ্যাতি পেয়েছেন ২২ বছর বয়সী রিয়াল বেটিসের এই তারকা। তাকে দলে ভেড়ানোর জন্য ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে যুদ্ধ। বার্সা ও রিয়াল দু’জনই চাইছে তাকে দলে।

রিয়াল ছাড়তে পারে যাদের:

গ্যারেথ বেল: ওয়েলসের এই তারকা রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে রিয়ালে এসে কাটিয়ে দিয়েছেন বেশ কয়েকটি মৌসুম। শুরু দিকে নিয়মিত একাদশে জায়গা হলেও এখন সে অনিয়মিত। বেশিরভাগ ম্যাচেই তাকে নামানো হচ্ছে বদলি হিসেবে। আর তাতেই নাখোশ তিনি। সম্প্রতি নিজেই রিয়াল ছাড়ার কথা জানিয়েছেন তিনি। এখন শোনা যাচ্ছে বায়ার্ন মিউনিখ তাকে দলে ভেড়ানোর জন্য তদবির শুরু করেছে।

করিম বেনজেমা: দীর্ঘদিন ধরে খেলা এই তারকার এবারই রিয়ালে শেষ মৌসুম হতে যাচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে বাজে ফর্মে থাকা বেনজেমাকে আর রাখবে না মাদ্রিদ। সামনের গ্রীষ্মেই তাকে ছেড়ে দেয়া হবে। তার জায়গায় আনা হচ্ছে রবার্ট লেভানডস্কিকে।

কেইলর নাভাস: কোস্টারিকার এই গোলরক্ষককে কেন জানি পছন্দ করেন না রিয়াল ভক্তরা। লেভান্তে থেকে রিয়ালে আসার পর থেকেই তাকে বিভিন্ন সময় শুনতে হয়েছে দুয়ো। তাই তাকে আর রাখছে না পেরেজ।

মাতিও কোভাসিস: রিয়ালের একঝাক তরুণ মিডফিল্ডারদের মধ্যে অন্যতম কোভাসিস। কয়েকটি বড় খেলায় সে প্রথমে নামলেও গত তিন বছরে খেলেছে মাত্র ৩০ মাচ।

ইস্কো: ইস্কো নাকি এখন আর খুব একটা কাজে আসছে না রিয়ালের। তাই তাকেও ছেড়ে দেয়া হবে। ইস্কোর জায়গায় তারা এক মৌসুম আগে ছেড়ে দেয়া মোরাতাকে দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করছে।

ad