কাতারকে একাই রুখে দিলেন গুরপ্রীত

ফেব্রুয়ারিতে এএফসি এশিয়ান কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার মতো দলের বিরুদ্ধে খেলে এসেছে, তিন বছর পরে যারা নিজেদের দেশে বিশ্বকাপে খেলতে নামবে, বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে হাফ ডজন গোলে উড়িয়ে দিয়ে এসেছে-সেই কাতারকে তাদের ডেরায় আটকে দিল ভারতীয় ফুটবল দল। গোলশূন্য ড্র হল ম্যাচ।

বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে প্রথম ম্যাচে ঘরের মাঠে ওমানের কাছে হার। অসুস্থ থাকায় কাতারের বিরুদ্ধে খেলেননি সুনীল ছেত্রী। এমন অবস্থায় দোহায় এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিল ইগর স্টিমাচের দল। 

ভারতে আসার আগে তিনি কাতারের ক্লাবে কোচিং করিয়েছিলেন। তাই কাতারের ফুটবল সম্পর্কে একটা হোমওয়ার্ক ছিলই স্টিমাচের। রক্ষণাত্মক রণনীতি নিয়ে প্রথমার্ধে গোলের দরজা বন্ধ করে দিয়ে কাতারকে আটকে রাখা। আর দ্বিতীয়ার্ধে রক্ষণ সামলে, সুযোগ বুঝে-অঙ্ক কষে প্রতি আক্রমণে যাওয়া। এর ফলে কাতারের যাবতীয় পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। পাল্টা দূরপাল্লার শটে গোল করার চেষ্টা করে কাতার। কিন্তু দুরন্ত গুরপ্রীত কাতার আক্রমণের সামনে চিনের প্রাচীর হয়ে উঠলেন। মঙ্গলবার দোহায় ভারতের সাফল্যের কারিগর অবশ্যই কোচ ইগর স্টিমাচ আর গুরপ্রীত সিং সিন্ধু। পরিকল্পনামাফিক ফুটবল খেলে কাতারকে আটকে দিল ভারত।

কাতারের মতো এশিয়া ফুটবলের অন্যতম সেরা শক্তির বিরুদ্ধে ভারতের এই ড্র, জয়ের সমান বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কাতারের আল সাদ ক্লাবে খেলা স্পেনের বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলার জাভি হার্নান্ডেজ স্টেডিয়ামে বসে দেখলেন ভারতীয় ফুটবলারদের এমন লড়াই।

মন্তব্য লিখুন :