টেস্টে আগ্রহ নেই সাকিবের!

অধিনায়কত্ব নয়, সাকিব আল হাসানের টেস্ট খেলার ব্যাপারেই আগ্রহ কম বলে মনে করেন বিসিবি প্রসিডেন্ট নাজমুল হাসান। অধিনায়কত্বের ব্যাপারে তার সঙ্গে কোনও কথা হয়নি জানিয়ে তিনি বলেছেন, টেস্ট খেলার অনাগ্রহের কারণেই অধিনায়কত্ব নিয়ে এমন বলে থাকতে পারেন সাকিব। 

আফগানিস্তানের সঙ্গে টেস্টের আগেই এক বাংলাদেশী পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাতকারে সাকিব বলেছিলেন টেস্ট অধিনায়কত্বের ব্যাপারে তার অনাগ্রহের কথা। আফগানিস্তানের সঙ্গে হারের পরও বলেছেন, অধিনায়কত্ব না করতে হলেই ‘সবচেয়ে ভাল হবে’। আর অধিনায়কত্ব করতে হলেও অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা আছেও বলে জানিয়েছিলেন তিনি। 

অবশ্য নাজমুল বলছেন, সংবাদমাধ্যম ছাড়া তাদের সঙ্গে কথা হয়নি সাকিবের। তবে এটি ঠিক যে আমরা দেখছি টেস্টের ব্যাপারে বেশ কিছুদিন থেকে ওর আগ্রহ তেমন নেই। বিশেষ করে আপনারা যদি দেখেন আমাদের বাইরে যখন দলগুলো যাচ্ছিলো তখন টেস্টের সময় সে একটু বিরতি চায়। স্বাভাবিকভাবেই ওর হয়তো আগ্রহটা কম।

তবে অধিনায়কত্ব নিয়ে কখনো শুনিনি, আমরা কখনো শুনিনি যে অধিনায়কত্ব নিয়ে ওর আগ্রহ কম আছে। তবে অধিনায়ক হলে তো টেস্ট খেলতেই হবে। অধিনায়ক না হলে না খেলেও পারা যায়। তাই স্বভাবতই হয়তো এই কারণে অধিনায়কত্বের কথাটি এসেছে।

আপাতত বিসিবির কাছে অধিনায়ক হিসেবে সাকিবই সেরা পছন্দ বলে মত নাজমুলের, তবে এটি ঠিক আছে। ও অনেক সার্ভিস দিয়েছে, আমরা মনে করি সে হলো সেরা অধিনায়ক। আমাদের হাতে যে অপশন আছে তাদের মধ্যে থেকে সে সেরা।

২০০৯ সালে মাশরাফি বিন মুর্তজার চোটের পর প্রথমবার অধিনায়কত্ব দেওয়া হয়েছিল সাকিবকে। দ্বিতীয় মেয়াদে ২০১৮ সালের পর টেস্ট অধিনায়ক করা হয়েছিল তাকে।

মন্তব্য লিখুন :