কুষ্টিয়ার পিয়াস হত্যা: একজনের ফাঁসি, ২ জনের যাবজ্জীবন

Piyas murder, one hanging, two people, life imprisonment,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের বিলুপ্ত ঘোষণা কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ও হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রলীগ নেতা শাহরুখ খান পিয়াস হত্যা মামলায় এক আসামীর ফাঁসি ও দুই আসামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ অর্থদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (৪ জুন) দুপুর ১২টায় কুষ্টিয়া জেলা দায়রা ও জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক অরুপ কুমার গোস্বামী এ রায় প্রদান করেন। এ সময় আসামীরা আদালতে উপস্থিত ছিল।

দণ্ডপ্রাপ্ত ফাঁসির আসামী হলো কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মোল্লাতেঘরিয়া গ্রামের মৃত কাশেম আলীর ছেলে টুটুল হোসেন (২৫)। তাকে ফাঁসির দণ্ডের পাশাপাশি ২০ হাজার টাকা জরিমানাও করেছেন আদালত।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলো- লাহিনী ক্যানাল পাড়া এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (৩০) ও জুগিয়া কদমতলা এলাকার মুনতাজ প্রামানিকের ছেলে মোশারফ হোসেন (৩০)। তাদেরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন আদালত।

কুষ্টিয়া আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, অভ্যন্তরীন কোন্দলের জের ধরে ২০১৫ সালের ১০ জুলাই বিকালে শহরের হরিশংকরপুর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে ডেকে বাড়ির সামনে ছাত্রলীগ নেতা শাহরুখ খান পিয়াসকে গুলি করে হত্যা করে টুটুল ও তার সহযোগিরা।

তিনি জানান, ঘটনার দিন রাতে পিয়াসের পিতা আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে কুষ্টিয়া সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাদের এই দণ্ডাদেশ দেন। পরে তাদেরকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

ad