খালেদা জিয়াকে ছাড়া কোনো নির্বাচন হবে না: রিজভী

Rizvi
ad

জাগরণ ডেস্ক: খালেদা জিয়াকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

শুক্রবার (১৩ জুলাই) দুপুরে নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

রিজভী বলেন, সরকার প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছেন। সরকারের উদ্দেশ্য খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখা। কারণ তারা জানে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়া নির্বাচনে এলে আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে হেরে যাবে। এ জন্যই তারা ষড়যন্ত্র করে খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে।

তিনি বলেন, সরকারের সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে। পরিষ্কার করে বলতে চাই, আপনারা যতই ষড়যন্ত্রের জাল বুনতে থাকেন না কেন, খালেদা জিয়াকে ছাড়া কোনো নির্বাচন হবে না, জনগণ হতে দেবে না।

বিএনপির এই নেতা সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেন, রাজশাহীতে ধানের শীষের প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল নির্বাচনী অনাচারে লিপ্ত কাশিয়াডাঙ্গা থানার ওসি ও গোয়েন্দা পুলিশের ওসির প্রত্যাহার চাইলেও নির্বাচন কমিশনের চুপ। রাজশাহীতে সারা শহরজুড়ে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা এমনভাবে পোস্টার সেঁটেছে যে, সেখানে অন্য কারও পোস্টার লাগানোর কোনো জায়গাই নেই। সিলেটে ধানের শীষের প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে প্রচার-প্রচারণা থেকে বিরত থেকে থানার সামনে অনশন করতে হচ্ছে গ্রেপ্তারকৃত নেতা-কর্মীদের মুক্তির জন্য। এভাবে চলতে পারে না।

তিনি বলেন, বরিশালে বিএনপির সমর্থকদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেয়া হচ্ছে। ধানের শীষের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলছে, মাইক ভাঙচুর করছে, সমর্থকদের মারধর করছে। খুলনা ও গাজীপুরে অনুসৃত নীতি বাস্তবায়ন করছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। এই ইসির অধীনে কখনওই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়।

এ সময় দলের যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ উপস্থিত ছিলেন।

ad