চলন্ত বাসে নারীকে গণধর্ষণ: তিনদিনের রিমান্ডে ৫ আসামী 

rape 3
ad

জাগরণ ডেস্ক: ঢাকার ধামরাইয়ে চলন্ত বাসে এক পোশাক শ্রমিককে পাঁচজন মিলে গণধর্ষণের ঘটনায় চালকসহ পাঁচজনকে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আবদুর রহমান এ আদেশ দেন।

ওই পাঁচ আসামীরা হলো- বাসচালক বাবু মল্লিক (২৪), যানবাহনের মিস্ত্রী আবদুল আজিজ (৩০), বাসের সুপারভাইজার বলরাম (২০), মকবুল হোসেন (৩৮) ও সোহেল (২২)।

ঢাকা জেলা পুলিশের আদালত পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, আজ এই পাঁচজনকে আদালতে হাজির করে ধামরাই থানা-পুলিশ সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে। ঘটনার রহস্য উদ্‌ঘাটনের জন্য এই রিমান্ড চাওয়া হয়। শুনানি শেষে আদালত তাঁদের প্রত্যেকের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ধর্ষণের এই মামলা তদন্ত করছেন ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক জাকারিয়া।

উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ‘যাত্রীসেবা’ নামের একটি লোকাল বাসে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, কারখানায় কাজ শেষে ধামরাইয়ের ইসলামপুর থেকে গতরাতে ‘যাত্রীসেবা’ নামের একটি লোকাল বাসে ওঠেন ওই পোশাক শ্রমিক। পথে পাঁচজন যাত্রী ব্যাতীত সবাই নেমে গেলে হেলপার বাসের দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে চালকসহ পাঁচজন ওই নারীকে লাগাতার ধর্ষণ করে।

এক পর্যায়ে ওই নারীর ডাক ও চিৎকারে একটি পেট্রোল পাম্পের কর্মীরা বিষয়টি বুঝতে পেরে ধামরাই থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে রাত ১২টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ের কচমচ এলাকা থেকে চলন্ত বাস থামিয়ে ওই নারী পোশাক শ্রমিককে উদ্ধারসহ অভিযুক্তদের আটক করে পুলিশ।

ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মলয় সাহা জানান, সংবাদ পাওয়ার পর পুলিশের চারটি পৃথক দল বাসটি ধাওয়া করে ওই নারীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় চালকের সহযোগী ওই পাঁচজনসহ মোট সাতজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ad