বরের বয়স ৭০, কনের বয়স ১২!

Child marriage
প্রতিকী ছবি
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফলে একটি অসম বিয়ের পাঁয়তারা চলছে। নওমালা ইউনিয়নের নগরেরহাট এলাকার ৭০ বছর বয়সী শাহজাহান কাজী বিয়ে করার চেষ্টা করছেন একই এলাকার মজিবর সিকদারের মেয়ে নাজমাকে (১২)। এই অসম বিয়ে সম্পন্ন হলে কনে নাজমা আত্মহত্যা করার ঘোষণা দিয়েছে।

বুধবার (১১ জুলাই) কনে নাজমার বড় বোন স্বজনী বাউফলের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দের কাছে বিষয়টি অবহিত করে প্রতিকার চেয়েছেন।

এ সময় স্বজনী সাংবাদিকদের  লেন, শাহজাহান কাজীর স্ত্রী, ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। এদের মধ্যে ৩ সন্তান বিদেশে থাকেন। মাঝেমধ্যে শাহজাহান কাজীর কাছ থেকে টাকা ধার নেন স্বজনীর মা রাজিয়া বেগম। রাজিয়া বেগমের দারিদ্রতার সুযোগ নিয়ে তার মেয়ে নাজমাকে প্রায় ২ বছর আগে বিয়ের প্রস্তাব দেন শাহজাহান কাজী। দেড় মাস আগে বিয়ে করার জন্য নাজমাকে খুলনা নিয়ে যান শাহাজাহান।  কৌশলে খুলনা থেকে পালিয়ে আসে নাজমা।

তিনি জানান, বিয়ে না করায় নাজমার মায়ের কাছে পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য চাপ দেয় শাজহাজান কাজী। এরপর আবার নাজমাকে তার হাতে তুলে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় মা রাজিয়া বেগম। শুক্রবার নাজমাকে নিয়ে ফের খুলনায় যাওয়ার কথা রয়েছে শাহজাহান কাজীর।

এদিকে জোর করে বিয়ে দেয়া হলে আত্মহত্যা করবেন বলে হুমকি দিয়েছেন কনে নাজমা।

বাউফল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে বলেন, নাজমার বোনের কাছে আমি বিষয়টি জেনেছি। কোনোভাবেই এ বিয়ে হতে পারে না। এ ব্যাপারে শিগগিরই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ad