মিরপুরে মা-দুই মেয়ের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

Mother, two daughters, throat cut, dead body, rescue,
ad

জাগরণ ডেস্ক: রাজধানীর মিরপুরে মা ও দুই শিশু সন্তানের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে দারুস সালাম থানার পুলিশ।

সোমবার (৩০ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সরকারি বাঙলা কলেজের উত্তর পাশে একটি কোয়ার্টারের চতুর্থ তলা থেকে পুলিশ এই তিনটি লাশ উদ্ধার করে।

নিহতরা হলেন- জেসমিন আক্তার (৩৫), তার মেয়ে হাসিবা তাহসিন হিমি (৯) এবং আদিলা তাহসিন হানি (৫)।

নিহত মা জেসমিন আক্তার (৩৫) কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কোষাধ্যক্ষ পদে চাকরি করতেন। স্বামী হাসিবুল ইসলাম জাতীয় সংসদের সহকারী লেজিসলেটিভ ড্রাফটম্যান হিসেবে কর্মরত। হাসিবুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি পঞ্চগড়ের ভজনপুর গ্রামে। জেসমিনের বাবার বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ে।

ঘটনাস্থল থেকে রক্তমাখা একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়। আর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ তিনটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, বাসার দরজা ভেঙে মা ও দুই মেয়ের লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনজনের গলা কাটা ছিল, জেসমিনের পেটেও ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বন্ধ কক্ষের মেঝেতে মা জেসমিনের ও খাটে দুই সন্তানের লাশ পড়া ছিল।

রাত সাড়ে ১০টার পর পরিদর্শক সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে আট সদস্যের সিআইডি ক্রাইম সিন ইউনিটের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) শেখ নাজমুল আলম বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে, দুই সন্তানকে হত্যা করে মা আত্মহত্যা করেছেন। তবে এর সঙ্গে অন্য কোন যোগসূত্র আছে কি না বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নিহতের পবিবার ও পুলিশের ধারণা, চাকরি ও সংসার নিয়ে মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে দুই সন্তানকে নৃশংসভাবে হত্যার পর আত্মহত্যা করেন মা জেসমিন আক্তার।

জেসমিনের খালাতো বোন রেহানা পারভীন জানান, আপার মাইগ্রেনের সমস্যা ছিল। সোহরাওয়ার্দীসহ ভারতেও চিকিৎসা নিয়েছে। মানসিক রোগী ছিলেন না, তবে মানসিকভাবে খুব বিপর্যস্ত ছিলেন। সন্তানদের জন্য সবসময় দুশ্চিন্তা করতেন। কিন্তু এমনটি কখনও হবে ভাবতে পারছি না।

ad