১ লাখ টাকার ওপরে থাকাদের সম্পদশালী বললেন অর্থমন্ত্রী!

1 lakh tk, wealthy, finance minister
ad

জাগরণ ডেস্ক: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এক লাখ টাকার ওপরে যাদের সম্পদ আছে তাদেরকে যথেষ্ট সম্পদশালী বলে অভিহিত করেছেন!

শুক্রবার (২ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, এক লাখ টাকার বেশি যাদের টাকা আছে তাদের আমরা সম্পদশালী বলতে পারি। তারা বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সম্পদশালী বলেই বাজেটে তাদের উপর বাড়তি কর আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে যদিও বিত্তবানের কোন সংজ্ঞা নেই। তবে এর বেশি হলে তখন আমরা আবগারি শুল্ক রাখার প্রস্তাব দিয়েছি। এক লাখ টাকা পর্যন্ত আমরা কোনো আবগারি শুল্ক রাখছি না।

অর্থমন্ত্রী বলেন, যারা একলাখ টাকা ব্যাংকে রাখতে পারেন, তারা আমাদের দেশের তুলনায় সম্পদশালী। তারা বাড়তি ভারটা বহন করতে পারবেন, সমস্যা হবে না।

তিনি আরও বলেন, যাদের টাকা এক লাখের ওপরে থাকবে কেবল তাদের উপরই একটা কর ধার্য করেছি। বড়লোকের ক্ষেত্রে আমাদের করটা ছিল, কিন্তু যারা মিড লেভেলে ছিল তারা এর অন্তর্ভুক্ত ছিল না। একলাখ টাকার নিচে যারা আছেন, তাদের ভার থেকে মুক্ত করাই যথেষ্ট।

উল্লেখ্য, নতুন বাজেটে ব্যাংক একাউন্টে লেনদেন ১ লাখ টাকার ঊর্ধ্বে হতে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত বিদ্যমান ৫০০ টাকার পরিবর্তে ৮০০ টাকা, ১০ লাখ টাকার ঊর্ধ্বে হতে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত ১ হাজার ৫০০ টাকার পরিবর্তে ২ হাজার ৫০০ টাকা, ১ কোটি টাকার ঊর্ধ্বে হতে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত ৭ হাজার ৫০০ টাকার পরিবর্তে ১২ হাজার টাকা এবং ৫ কোটি টাকার ঊর্ধ্বে বিদ্যমান ১৫ হাজার টাকার পরিবর্তে ২৫ হাজার টাকা আবগারি শুল্ক প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী।

এদিকে, বাজেট-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশে কোনো লোডশেডিং নেই। চাহিদা অনুযায়ী, দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। কোথাও কোথাও একটু সমস্যা থাকতে পারে। তবে এই সমস্যা কাটিয়ে ওঠা যাচ্ছে।

ad