কাশ্মীর: আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি পাকিস্তানের

কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি জানিয়েছে পাকিস্তান।

মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার পর্ষদের সভায় কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি জানাল ইমরান খান সরকার।

এদিন জেনেভায় ৪২তম মানবাধিকার কাউন্সিলের সভায় কাশ্মীর পরিস্থিতি প্রসঙ্গে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেন, কাশ্মীরিদের সুবিচারের জন্য জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের দরজায় কড়া নাড়ছি আজ।

কুরেশি বলেন, অবিলম্বে যাতে কার্ফু প্রত্যাহার করে, যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনরায় চালু করে, রাজনৈতিক নেতাদের মুক্ত করে মানুষের মৌলিক অধিকার যাতে ফিরিয়ে দেওয়া হয়, সেজন্য ভারতকে আবেদন করুক জাতিসংঘ।

এর আগে কাশ্মীর ইস্যুতে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের হাই কমিশনার মিশেল ব্যাশেলেটিউদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ভারত সরকারের পদক্ষেপে আমরা কাশ্মীরিদের মানবাধিকার নিয়ে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। ইন্টারনেট পরিষেবায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা ও কর্মীদের আটক করে রাখা হয়েছে।

ব্যাশলেট আরও বলেন, কাশ্মীরে এই অচলাবস্থা কাটাতে বিশেষত ভারতের কাছে আর্জি রাখছি, যাতে বাসিন্দাদের মানবাধিকার যেন সুরক্ষিত থাকে। যাঁদের আটক করে রাখা হয়েছে, তাঁদের অধিকার ফেরানোর কথাও বলেছেন তিনি।

এদিকে, জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে যৌথ বিবৃতি দিয়েছে পাকিস্তান ও চীন। যৌথ বিবৃতিতে কাশ্মীরে মোদী সরকারের সর্বাত্মক পদক্ষেপের বিরোধিতা করে শান্তিপূর্ণ সমাধানের আহ্বান করা হয়েছে। তবে এ প্রবল বিরোধিতা করা হয়েছে নয়াদিল্লির তরফ থেকে।

মন্তব্য লিখুন :