বিয়ে ছাড়াই এক রুমে রাত কাটানো যাবে সৌদিতে

এ বার থেকে অবিবাহিত নারী-পুরুষ একই সঙ্গে হোটেলে থাকতে পারবেন। পর্যটক টানতে রক্ষণশীলতার বেড়াজাল ভেঙে বিদেশিদের এমনই ছাড়পত্র দিল সৌদি সরকার।

শুধু বিদেশি পর্যটকই নয়, সৌদি মহিলারাও এবার থেকে হোটেলে একা থাকতে পারবেন। তবে সে ক্ষেত্রে হোটেলে চেক-ইনের জন্য তাঁদের প্রমাণপত্র দেখাতে হবে। তবে বিদেশি পর্যটকদের ক্ষেত্রে এ রকম কোনও প্রমাণপত্র লাগবে না বলেই জানিয়েছে দ্য সৌদি কমিশন ফর ট্যুরিজম অ্যান্ড ন্যাশনাল হেরিটেজ।

জ্বালানি তেল রফতানিই মূলত সৌদির অর্থনীতির প্রধান উত্স। কিন্তু এর পাশাপাশি এ বার পর্যটনের উপর জোর দেওয়া শুরু করেছে সৌদি সরকার। বিদেশি পর্যটক টানতে কয়েক দিন ৪৯টি দেশকে ছাড়পত্র দিয়েছে তারা।

তাদের মূল লক্ষ্য ২০৩০-এর মধ্যে প্রতি বছর ১০ কোটি পর্যটক টানা। সেই লক্ষ্যে পৌঁছতেই অনেক বিষয়েই রক্ষণশীলতাকে দূরে সরিয়ে দিচ্ছে সৌদি সরকার। অবিবাহিত বিদেশি নারী-পুরুষের এক সঙ্গে হোটেলে থাকার বিষয়টিই তার একটা উদাহরণ।

শুধু সে দেশের মহিলাদের স্বাধীনতা দেওয়াই নয়, বিদেশি পর্যটকদের সে দেশে ভ্রমণের অনুমতি এবং তাঁদের পোশাকের ক্ষেত্রেও রাশ আলগা করেছেন কর্তৃপক্ষ। শরীর ঢাকা কালো পোশাক নয়, তবে পোশাক যেন শোভন হয়— এমনই নির্দেশিকা জারি করেছিল সৌদি সরকার।

জনসমক্ষে অবিবাহিত নারী-পুরুষদের মেলামেশা কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ ছিল সৌদিতে। শুধু সৌদি নাগরিকই নন, বিদেশিদের জন্যও এই বিষয়টি শাস্তিযোগ্য ছিল। রক্ষণশীলতার মোড়ক ছেড়ে বেরনোর এই কাজটা শুরু করেন সৌদির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সলমন। গত কয়েক বছরেই বেশ কিছু বিধিনিষেধের রাশ আলগা করতে দেখা গিয়েছে সৌদি সরকারকে।

মন্তব্য লিখুন :