পরকীয়া প্রেমিককে নিয়ে স্বামীকে ৯ টুকরো করে স্ত্রী!

পরকীয়া প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে টুকরো টুকরো করে হত্যা করেছেন স্ত্রী। শুধু তাই নয়, হত্যার পর তার মরদেহের টুকরো রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় ফেলে দেন।

রোমহর্ষক খুন হয়েছিল ২০১১ সালে। পলিগ্রাফ টেস্ট করেও সমাধান হয়নি। শেষ পর্যন্ত ৯ বছর পর সেই খুনের কিনারা করল পুলিশ। ঘটনাটি ঘটে ভারতের রাজধানীতে।

এ ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছে নিহতের স্ত্রীর প্রেমিক এবং এক ক্যাব চালক। স্ত্রীকে হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ।

জানা যায়, বিয়ের কিছু দিন পর হঠাৎই নিখোঁজ হয়ে যান দিল্লির যুবক রবি। কয়েক দিন পর রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কিছু মাংসপিণ্ড উদ্ধার হয়। তদন্তে নেমে কার্যত কোনও সূত্রই পাচ্ছিল না পুলিশ। তবে সন্দেহ ছিল স্ত্রী শকুন্তলা, তাঁর প্রেমিক কমল এবং এক ক্যাব চালকের উপর। এমনকি, ২০১২ সালে পলিগ্রাফ টেস্টের পরেও খুনের কিনারা হয়নি।

তবে জট খোলে ২০১৭ সালে। ওই সময় সন্দেহের তালিকায় থাকা তিন জনেরই ব্রেন ম্যাপিং টেস্ট হয় এবং তাতেই কমল ও ক্যাব চালক দু’জনেই খুনের কথা স্বীকার করে। কিন্তু তার পর থেকেই তিন জন ফেরার ছিলেন। অবশেষে রাজস্থানের অলওয়ার থেকে কমলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে ধরা পড়ে ক্যাব চালকও।

এর মধ্যে রবির স্ত্রী শকুন্তলা আবার বিয়ে করেছেন। বর্তমানে তিনি সন্তানসম্ভবা এবং ফেরার। পুলিশ তাঁর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন :