করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরও ১০ হাজার মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক দিনে সারা বিশ্বে আরও ১০ হাজার ৯২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মাঝে যুক্তরাষ্ট্রেই মারা গেছেন তিন হাজারের বেশি মানুষ। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও পাঁচ লাখ ২৮ হাজার ৫১৯ জন।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় পরিসংখ্যানভিত্তিক আন্তর্জাতিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে পুরো বিশ্বে। করোনায় এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪৭ লাখ ৪২ হাজারের বেশি মানুষের। আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ কোটি ১৪ লাখের মতো মানুষ। এর মাঝে ইতিবাচক খবর হচ্ছে ইতোমধ্যে ২০ কোটি সাড়ে ৮০ লাখের বেশি মানুষ করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে প্রাণহানি ও অসুস্থদের পরিসংখ্যান রাখা আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মারা গেছেন ৪৭ লাখ ৪২ হাজার ৬১০ জন। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বিশ্বের ২৩ কোটি ১৩ লাখ ৮৬ হাজার ৯৮৫ জন মানুষ।

তবে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন অনেক মানুষ। এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের মধ্যে ২০ কোটি ৮০ লাখ ৫২ হাজার ৭৫৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটি ৩৫ লাখ ৩২ হাজার ৪৯১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৭ লাখ ২ হাজার ৯৭৮ জন। বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যুর এ সংখ্যা ছিল ছয় লাখ ৯৯ হাজার ৭৪৮ জন।

তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ৩৫ লাখ ৯৪ হাজার ৮০৩ জনের। এর মধ্যে মারা গেছেন চার লাখ ৪৬ হাজার ৩৯৯ জন।

তালিকার তৃতীয় অবস্থানে থাকা ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে সংক্রমিতের সংখ্যা দুই কোটি ১৩ লাখ ৮ হাজার ১৭৮ জন। এর মধ্যে পাঁচ লাখ ৯৩ হাজার ১৮ জন মারা গেছেন।

তালিকায় এর পরের স্থানগুলোতে রয়েছে যথাক্রমে যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ফ্রান্স, তুরস্ক, ইরান, আর্জেন্টিনা, কলম্বিয়া, স্পেন ও ইতালি।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। পরে ১১ মার্চ, ২০২০ সালে করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।