বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ ঘোষণা

করোনাভাইরাসের জন্য ভারত সরকার লকডাউন ঘোষণা করায় সোমবার (২৩ মার্চ থেকে আগামী শুক্রবার (২৭ মার্চ) পর্যন্ত বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ভারত।

পণ্যবাহী ট্রাক বা ট্রাকের চালক ও হেলপারদের মাধ্যমে করোনাভাইরাসের জীবাণু এক দেশ থেকে অন্য দেশে প্রভাব বিস্তার না করতে পারে সেই লক্ষ্যে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার। ফলে পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে সোমবার কোন পণ্যবাহী ট্রাক বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করেনি।

বেনাপোল বন্দর দিয়ে কোন পণ্য নিয়ে ট্র্রাক পেট্রাপোল বন্দরে যায়নি। এর আগে ২২ মার্চ ভারতে ১৪ ঘন্টার জনতার কারফিউ জারি করায় এ পথে আমদানি-রফতানি বন্ধ ছিল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনে লকডাউন এর সময় বৃদ্ধি করা হতপ পারে বলে ওপারের বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

ভারতের পেট্রাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ ওয়েল ফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানান, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার কলকাতাসহ আশপাশের শহরগুলোতে ২৩-২৭ মার্চ লকডাউন ঘোষণা করায় সকাল থেকে বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দরের সঙ্গে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ হয়ে গেছে। আগামী ২৭ মার্চ বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে এই লকডাউন। রবিবার (২২ মার্চ) পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এক জরুরি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বলা হয়, লকডাউনের সময়ে কলকাতাসহ অন্য শহরগুলোতে আপৎকালীন পরিষেবা বাদ দিয়ে বাকি সবকিছু বন্ধ থাকবে।

বেনাপোল কাস্টম হাউজের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা জানান, করোনা ভাইরাসের প্রভাব বিস্তার রোধে সোমবার ‘সকাল থেকেই দুই দেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। আগামী ২৭ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।