ইবি ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালনের পরিবারকে হুমকি দেওয়ার ঘটনায় সাত জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। 

মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের কর্মচারী ইলিয়াস জোয়ার্দারকে প্রধান আসামি করে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ (৪ নং আসামি) এবং সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে (৩ নং আসামি) আসামি করা হয়েছে। 

শনিবার (২ নভেম্বর) রাতে লালনের ভগ্নীপতি শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মেহেরপুরের গাংনী থানায় এ মামলা দায়ের করেন। ইবি কর্মচারীসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে দন্ডবিধির ১৪৩, ৪৪৮ এবং ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন, ক্যাম্পাস পাশর্^বর্তী শেখপাড়া গ্রামের বাসিন্দা উজ্জ্বল জোয়ার্দার, গাংনীর বেদবাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা অনিক, সবুজ হোসেন, শৈলকূপার চরপাড়া গ্রামের ওবায়দুর রহমান। এছাড়া মামলায় আরও ৩/৪ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন থানা সূত্র।

শাখা ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান লালন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমানের দূর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসছে। ড. মাহবুবের বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় মামলার এজাহারে থাকা আসামিগণ দীর্ঘদিন লালনকে হুমকি দিয়ে আসছেন। 

সেই সূত্র ধরে গত শুক্রবার (১ নভেম্বর) আসামিরা লালনের বাড়ি গিয়ে লালনকে খুঁজতে থাকে। লালনকে না পেয়ে তার পরিবারের সদস্যদের হুমকি প্রদান করে। এ ঘটনায় ক্যাম্পাসে দুই দফায় বিক্ষোভ মিছিল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক আটকে দিয়ে আন্দোলন করে শাখা ছাত্রলীগের বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা।

এ বিষয়ে গাংনী থানার মামলার ভারপ্রাপ্ত তদন্ত কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ইবি কর্মচারীসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে দন্ডবিধির ১৪৩, ৪৪৮ এবং ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটককৃত ৪ জনকে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।