ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকসহ ২ জনকে কুপিয়ে জখম, ঘাতক গ্রেপ্তার

ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও এনটিভির ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি লুৎফর রহমান মিঠু ও তার বন্ধুকে কুপিয়ে জখম করার পর পুলিশ এক যুবককে আটক করেছে।

রবিবার বিকালে শহরের গোধুলি বাজারপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। সোমবার দুপুরে আটক আবু সাঈদ বাপ্পিকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আহতরা হলেন- এনটিভির ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ও ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান মিঠু (৪৩) এবং তার বন্ধু সাদেকুল ইসলাম সাদেক (৪২)।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন লুৎফর রহমান মিঠু বলেন, দুপুরে কাজ শেষ করে মোটরসাইকেলে করে বন্ধু সাদেকুল ইসলাম সাদেককে নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলাম। এ সময় বাড়ির দরজার সামনে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা বখাটে যুবক আবু সাঈদ বাপ্পি আকষ্মিকভাবে চাপাতি দা নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। সে আমার কপালে ধারালো ছোড়া দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় সাদেক বাধা দিলে তাকেও কুপিয়ে জখম করে বখাটে বাপ্পি।

পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে অভিযান চালিয়ে বখাটে আবু সাঈদ বাপ্পিকে আটক করা হয়েছে এবং এ ঘটনায় মামলা সোমবার দায়ের হয়েছে। সোমবার দুপুরে আটক আবু সাঈদ বাপ্পিকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক লুৎফর রহমান মিঠুর উপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী, টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফিরোজ আমিন সরকার, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, অনলাইন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জিয়াউর রহমান বকুল, সাধারণ সম্পাদক শাকিল আহমেদসহ জেলার সকল সাংবাদিকরা।