রিকশায় ফেলে যাওয়া ২০ লাখ টাকা ফেরত দিলেন চালক

রিকশায় ফেলে যাওয়া ২০ লাখ টাকাভর্তি ব্যাগ ফেরত দিয়ে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন বগুড়া শহরের রিকশাচালক লাল মিয়া।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সকালে এক যাত্রীর ফেলে যাওয়া ব্যাগ ফিরিয়ে দিয়ে এখন দেশজুড়ে আলোচনায় তিনি।

পুলিশ জানায়, নন্দীগ্রামের ব্যবসায়ী রাজিব প্রসাদ নিজ প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার জন্য আজ (শুক্রবার) সকাল ৭টার দিকে তিনি বাসার নিচ থেকে লাল মিয়ার রিকশায় ওঠেন। রাজিব প্রসাদের কাছে একটি ব্যাগে প্রায় ২০ লাখ টাকা ও অন্য দুই ব্যাগে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ছিল। রাজিব প্রসাদ শহরের সাতমাথায় রিকশা থেকে নেমে বাসে ওঠেন। কিছুক্ষণ পর তার খেয়াল হয়, টাকার ব্যাগ রিকশায় ফেলে এসেছেন।

সঙ্গে সঙ্গে তিনি বাস থেকে নামেন এবং বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেন। তবে লাল মিয়া পড়ে থাকা ব্যাগ দেখে তা খুলে ভেতরে টাকা দেখতে পান। তখন তিনি রিকশা নিয়ে ব্যবসায়ী রাজিব প্রসাদকে খুঁজতে শুরু করেন। কিন্তু রাজিব প্রসাদকে খুঁজে না পেয়ে তিনি টাকার ব্যাগ নিজের ভাড়া বাসায় নিয়ে এসে রাখেন।

এরপর শহরের খান্দার এলাকায় এসে টাকা হারানোর মাইকিংয়ের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। এসময় এসআই জহুরুল ইসলাম এসে লাল মিয়াকে টাকা হারানোর কথা জানান। বর্ণনা শোনার পর লাল মিয়া জানান, টাকার ব্যাগ তার কাছে আছে। পরে পুলিশ সুপারের মাধ্যমে তিনি তা ফেরত দেন।

ব্যবসায়ী রাজিব প্রসাদ জানান, লাল মিয়াকে একটি নতুন রিকশা কিনে দেবেন তিনি। এ ছাড়া, সদর থানার ওসিকে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছেন।

লাল মিয়া বলেন, পরের অর্থ-সম্পদের প্রতি লোভ নেই। টাকাগুলো মালিককে ফেরত দিতে পেরে অনেক খুশি।

বগুড়া সদর থানার ওসি এসএম বদিউজামান জানান, লাল মিয়ার সততায় তারা অভিভূত হয়েছেন। টাকা ফেরত পেয়ে যারপরনাই খুশি হয়েছেন ব্যবসায়ী রাজিব প্রসাদ।