টেকনাফে 'বন্দুকযুদ্ধে' রোহিঙ্গা যুবক নিহত, ইয়াবা উদ্ধার

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে মাদক কারবারিদের ‘গোলাগুলিতে’ এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) ভোররাতে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা এলাকায় নাফ নদী সংলগ্ন ছ্যুরি খালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নুর কবির (২৮) মিয়ানমারের মোতালেবের ছেলে। অপরদিকে পাচারকারীদের গুলিতে দুই বিজিবি সদস্যও আহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে সোয়া লাখ পিস ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে বিজিবি।

টেকনাফ-২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. ফয়সাল হাসান খান জানান, ছ্যুরি খালের কিনারায় কেওড়া বাগানের ভেতরে কয়েকজন ব্যক্তি কাদা মাটিতে গর্ত খুঁড়ছিল। এ সময় বিজিবির নিয়মিত টহলদল টর্চের আলোতে তাদের দেখতে পেয়ে চ্যালেঞ্জ করলে কালো পলিথিন মোড়ানো বস্তা নিয়ে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন পিছু ধাওয়া করলে তারা অতর্কিতে বিজিবির ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এ সময় দুই বিজিবি সদস্য আহত হন। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি করে।

তিনি বলেন, প্রায় ৭-৮ মিনিট গুলি বিনিময়ের পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে বিজিবি সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে পৌঁছার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পকেটে থাকা পরিচয় পত্র দেখে সে মিয়ানমারের নাগরিক (রোহিঙ্গা) নুর কবির (২৮) বলে শনাক্ত করা হয়।

এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে ১ লাখ ২০ হাজার পিস ইয়াবা, ১টি দেশীয় বন্দুক ও ২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করতে সক্ষম হয় বিজিবি জানান তিনি।