পাবনায় ধর্ষণের পর হত্যা, ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

সাত বছর আগে পাবনায় গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে দুই আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

বুধবার (২০ নভেম্বর) সকালে পাবনা জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ওয়ালিউর রহমান এ আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- পাবনার সুজানগর থানার বনগ্রামের নিজাম উদ্দিনের ছেলে আজিম উদ্দিন (৪৫) ও তার সহযোগী ঢাকা নবীনগরের মৃত আনোয়ার হোসেনের ছেলে ইকবাল হোসেন (৪৪)। তাদেরকে ১ লাখ টাকা করে জরিমানাও করেছেন আদালত।

নিহত কাকলী খাতুন (৩০) রাজবাড়ী জেলার কালুখালী গ্রামের জলিল সরদারের মেয়ে ও ঢাকার একটি গার্মেন্টসের কর্মী ছিল।

আদালতে সরকার পক্ষের আইনজীবী ছিলেন, পাবনা নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট খন্দকার আব্দুর রকিব এবং আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন এডভোকেট শরিফুল ইসলাম ও এডভোকেট কাজি মকবুল হোসেন।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আসামি ইকবাল ও আজিম ঢাকা থেকে কাকলীকে পাবনার সুজানগরে নিয়ে আসে। রাতে উপজেলার রামজীবনপুর মাঠের একটি নার্সারিতে তাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তারা।