আমতলীতে বাসের চাকায় পিষ্ট শিশু

বরগুনার আমতলীতে সৌদিয়া পরিবহনের চাকায় পিষ্ট হয়ে নিহত হয়েছে পাঁচ বছরের শিশু। পুলিশ ঘাতক বাসটি আটক করেছে কিন্তু চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।

রবিবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল তিনটার দিকে আমতলী-কুয়াকাটা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুটির বাড়ি পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার কাপালির হাট গ্রামে।

নিহত ওই শিশুর নাম আমিনুর, শিশুটির বাবা মনজু ফরাজী ও মা আমেনা বেগম আমতলীর এমএসবি ইটভাটায় শ্রমিকের কাজ করে।

জানাগেছে, আমতলী-কুয়াকাটা মহাসড়কের আমতলী খলিয়ান নামক স্থানে রবিবার বিকাল ৩ টার দিকে এমএসবি ইটভাটার নারী শ্রমিক আমেনা বেগম তার শিশু পুত্র আমিনুরকে নিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিল। এমন মুহূর্তে বেপরোয়া গতির চট্টগ্রামগামী সৌদিয়া পরিবহন শিশুটিকে চাপা দেয়। বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে শিশু আমিনুর গুরুতর আহত হয়।

পরে স্থানীয়রা শিশুটিকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিশুটিকে হাসপাতালে আনার পূর্বেই সে মারা গেছে।

আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি বলেন, আবেদনের প্রেক্ষিতে শিশুটির মরদেহ ময়না তদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ঘাতক বাসটি আটক করা হয়।