ঠাকুরগাঁওয়ে একই স্থানে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সমাবেশ, সংঘাত এড়াতে ১৪৪ ধারা জারি

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বেগুনবাড়ী ইউনিয়নের দানারহাট ঈদগাহ ময়দানে একই সময়ে বিএনপি ও আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সমাবেশ ডাকায় সংঘর্ষ এড়াতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা আদেশ জারি করেছে। এছাড়া বিপুল সংখ্যক পুলিশ বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুর ১টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা। এই সময়ের মধ্যে ওই স্থানে সকল প্রকার জমায়েত, সভা ও সমাবেশ নিষিদ্ধও করা হয়েছে। কেউ আইন অমান্য করে জমায়েতের চেষ্টা করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা যায়, ২১ জানুয়ারি তারিখে প্রশাসনের অনুমোদন নিয়ে ২৩ শে জানুয়ারি দানারহাট আনছারীয়া ফাজিল মাদ্রাসায় কর্মী সমাবেশের আহ্বান করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। এদিকে একই দিনে একই স্থানে ইউনিয়ন বিএনপির কাউন্সিলের ঘোষণা দেয় বিএনপি। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়। এ ব্যাপারে দুই দলের নেতারা পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন।

এ বিষয়ে বেগুনবাড়ী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. লাবু অভিযোগ করে জানান, গত ২১ তারিখে প্রশাসনের অনুমোদন নিয়ে তিনি দানারহাট আনছারীয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ২৩ শে জানুয়ারি বৃহস্পতিবার কর্মী সমাবেশের আহ্বান করেন। তার দাবি, বিএনপি কোন প্রশাসনিক অনুমোদন ছাড়াই কর্মী সমাবেশ বানচাল করতে একই স্থানে সমাবেশ ডাকে।

অন্যদিকে এ প্রসঙ্গে বেগুনবাড়ি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি এসএম আবুল কাশেম আজাদ পাল্টা অভিযোগ করে জানান, বেগুনবাড়ী ইউনিয়ন বিএনপির কাউন্সিলের জন্য গত ১৬ জানুয়ারি জেলা পুলিশ সুপার বরাবর অবগতিমূলক প্রত্যয়নপত্র দেয়া হয়। একই সময়ে একই স্থানে পাল্টা সমাবেশ ডেকে দলীয় চাপ প্রয়োগ করে প্রশাসনকে দিয়ে আয়োজিত কাউন্সিল ভুল করার অপচেষ্টা চালিয়েছে আওয়ামী লীগ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, একই স্থানে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সভা আহ্বান করায় যাতে আইনশৃঙ্খলার অবনতি না ঘটে এবং সংঘাত সংঘর্ষ না হয় সে জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার  বেগুনবাড়ি ইউনিয়নের এই এলাকাতেই বিগত সংসদ নির্বাচনের সময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটেছিল।