মুরাদনগরে জ্বর -শ্বাসকষ্ট এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

কুমিল্লার মুরাদনগরে রায়হান সরকার রাফি (২০) নামে এক যুবকের মৃত্যুতে এলাকায় করোনা আতংক বিরাজ করছে।

বুধবার দুপুরে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাঁর মৃত্যু হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়,  জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও কাশি এবং  পায়ের সমস্যা নিয়ে বুধবার দুপুর ২টার দিকে চিকিৎসা নিতে নবীনগর হাসপাতালপ যায়। কিন্তু ভর্তি হওয়ার আগেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ডাক্তার তাকে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন। কিন্তু গাড়িতে তোলার আগেই সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে মারা যায়।

মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন বলিঘর গ্রামের মোখলেসুর রহমানের ২য় ছেলে রায়হান সরকার রাফি শ্রীকাইল সরকারি কলেজ থেকে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন। এই মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে নবীনগর হাসপাতালসহ ও নিহতের নিজ গ্রামে সর্বত্র করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

বাঙ্গরা বাজার থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু সংবাদ পাওয়া মাত্র আমরা ওই বাড়ির আশে-পাশের বাড়িসমূহ লকডাউন করে রেখেছি। পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায় নিহত রায়হান  দীর্গদিন ধরে শ্বাসকষ্ট এজমাজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। গত ৬ দিন পূর্বে তাঁর পা ভেঙে যায়। তবে ঢাকা থেকে রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত অতিরিক্ত সতর্কতার জন্য লকডাউন করে রাখা হয়েছে। বলীঘর গ্রামের কবরস্থানে লাশ দাফনের প্রস্তুতি চলছে।

নিহতের পিতা মোখলেছুর রহমান জানান, তার বড় ছেলে সৌদি আরবে থাকেন। বাড়ীতে কোন প্রবাসী আসে নাই এবং রায়হানও কোথাও যায়নি। সে অনেক বছর ধরে শ্বাসকষ্টজনিত নিউমিনিয়া রোগে ভুগছিল। বছর খানেক আগেও ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হসপিটাল থেকে চিকিৎসা করানো হয়।

নবীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) ডা. মোশরাত ফারখান্দা জেবিন  বলেন, যুবকটি করোনায় আক্রান্ত ছিলো কি না আমরা এই মুহূর্তে বলতে পারবো না। তবে করোনা ভাইরাসের একাধিক উপসর্গ তাঁর মাঝে লক্ষ্য করেছি। বিশেষ করে শ্বাসকষ্ট ও জ্বর ছিল।  তাই তার করোনা পরীক্ষার জন্য সব নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় প্রেরণ করা  হয়েছে।