হাতিয়ায় আশ্রয়কেন্দ্রে ২৫ হাজার মানুষ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রভাবে বৈরি আবহাওয়া বিরাজ করায় উপকূলীয় অঞ্চলের ২৫ হাজার মানুষকে ১৮৫টি আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তবে কিছু কিছু মানুষ এখনও আশ্রয়ণ কেন্দ্রের দিকে আসছেন।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) রাত সাড়ে ১২টার দিকে হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, হাতিয়া উপজেলায় ১৮৫টি আশ্রয়কেন্দ্রে ৮০ হাজার মানুষের ধারণ ক্ষমতা রয়েছে। তবে বর্তমানে পঁচিশ হাজার মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান করছেন। আশ্রয়কেন্দ্র গুলোতে বিশুদ্ধ পানি ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। ইডিপির অর্থায়নে সিপিপির ১৭৭টি ইউনিট ঘূর্ণিঝড় আমফান মোকাবিলায় কাজ করছে।

উল্লেখ্য, নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়া উপজেলা পুরোটা মেঘনা নদী দ্বারা বেষ্টিত হওয়ায় যে কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ দ্বীপটির উপর বেশি আঘাত হানে।