পুলিশের তাড়া খেয়ে জুয়াড়ির বিলে ঝাঁপ

তিন দিন পর লাশ উদ্ধার

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে জুয়া খেলার সময় পুলিশের তাড়া খেয়ে বিলে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হওয়ার তিনদিন পর বকুল নামে একজনের লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় জনতা।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) ভোরে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা এলাকায় মাইকিং করে বিলে নেমে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করেন।

নিহত বকুল উপজেলার মাইজবাগ ইউপির মল্লিকপুর গ্রামের নূরুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত ২৬ মে বিকালে উপজেলার বড়হিত ও মাইজবাগ ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী বড়ডাংরি বেহাই বিলের নির্জন স্থানে জুয়াড়িরা জুয়ার আসর বসায়। এ সময় ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের একটি দল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জুয়াড়িরা পালিয়ে গেলেও পুলিশ চারজনকে আটক করে। এ সময় পুলিশের তাড়া খেয়ে বকুল বিলে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হন। পুলিশ তাকে ধরার জন্য অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তার কোনো সন্ধান পায়নি। পরে ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়।

ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে রাতভর চেষ্টা করেও কোনো সন্ধান পায়নি। পরদিন বুধবার ভোর থেকে নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধানে ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মাহফুজুর রহমানের নেতৃত্বে আট সদস্যের একটি দল নামে।

এর পর কিশোরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার আবুবকর সিদ্দিকের নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি দলও দিনভর অভিযান চালিয়ে নিখোঁজের সন্ধান পায়নি। পরে বৃহস্পতিবার ভোরে স্থানীয়রা নিখোঁজ বকুলের মরদেহ উদ্ধার করে।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোখলেসুর রহমান আকন্দ জানান, নিখোঁজ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল রিপোর্ট শেষে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।