দিনাজপুরে স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৩১ জনের করোনা শনাক্ত

দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ জন স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৩১ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হওয়া রোগী দাঁড়াল ১৭৯ জন। 


বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেন জেলা সিভিল সার্জন আবদুল কুদ্দুস।

জানা যায়, নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদর উপজেলায় ৪ জন, চিরিরবন্দরে ২, পার্বতীপুরে ৪, বিরামপুরে ৮ ও নবাবগঞ্জে ১৩ জন রয়েছেন। নবাবগঞ্জ উপজেলায় শনাক্ত হওয়া ১৩ জনের মধ্যে ১২ জনই উপজেলার বিভিন্ন কমিউনিটি ক্লিনিকে স্বাস্থ্যকর্মীর দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছেন। তাঁদের প্রত্যেকেই স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হয়েছেন।

তবে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা শাহজাহান আলী বলছেন, নমুনা পরীক্ষায় কোনো নামের পরিবর্তন কিংবা অন্য কোনো ত্রুটি হয়েছে কি না, এমন সন্দেহে আবার তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশি ৪২ জন। এ ছাড়া কাহারোলে ৯, বিরলে ২২, বোচাগঞ্জে ৯, পার্বতীপুরে ১১, ফুলবাড়ীতে ৪, নবাবগঞ্জে ২০, হাকিমপুরে ২, খানসামায় ৬, বিরামপুরে ১৮, ঘোড়াঘাটে ১৯, চিরিরবন্দরে ৬ ও বীরগঞ্জ উপজেলায় ১১ জন। এখন পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন।

এ ব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন আবদুল কুদ্দুস বলেন, দিনাজপুরে স্থানীয়ভাবে সংক্রমণের শিকার হয়েছেন ৩০ জন। অন্যরা বিভিন্ন জেলা থেকে দিনাজপুরে এসেছেন। ঈদের পরে স্থানীয় ব্যক্তিদের মধ্যে সংক্রমণের হার বাড়ছে। তিনি আশঙ্কা করছেন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চললে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়বে।