চাল আত্মসাতের তথ্য সংগ্রহ করায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি

কুড়িগ্রামে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠায় এ বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করায় জুয়েল রানা নামে এক সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে। 


বৃহস্পতিবার (৪ জুন) দিবাগত রাতে সাংবাদিক জুয়েল রানাকে মুঠোফোন হুমকি প্রদান করে ইউপি সদস্যের স্বজনরা।

জুয়েল রানা বার্তা২৪. কম নামের একটি অনলাইন পত্রিকার কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত।

জানা যায়, করোনাভাইরাসের এই সঙ্কটকালে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছি ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আফরোজা বেগমের বিরুদ্ধে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় সহায়তা পাওয়া অসহায় পরিবারের ৩৯০ কেজি চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠে। বিষয়টি নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জন্য তথ্য সংগ্রহের পর ওই সাংবাদিককে মুঠোফোনে জীবননাশের হুমকি দিয়েছে ইউপি সদস্যের স্বামী ও অজ্ঞাত এক ব্যক্তি।

এ ব্যাপারে সাংবাদিক জুয়েল রানা আজ শুক্রবার কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। 

সাংবাদিক জুয়েল রানা জানান, দুঃস্থ পরিবারের ৩৯০ কেজি চাল আত্মাসাত করার অভিযোগ পেয়ে তথ্য সংগ্রহ করার পর গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ফোনে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও জীবননাশের হুমকি দিয়েছে ওই ইউপি সদস্যের স্বামী ও অজ্ঞাত আরও এক ব্যক্তি।

হুমকি প্রদানের বিষয়ে জানতে চাইলে ইউপি সদস্য মোছা. আফরোজা বেগম বলেন, ভুল বোঝাবুঝির কারণে এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়নি। চাল আত্মসাতের অভিযোগটি মিথ্যা হওয়ায় রাগতস্বরে একটু কথা হয়েছিল।

অনিয়মের তথ্য সংগ্রহ করায় সাংবাদিককে হুমকি প্রদান করায় ঘটনার উদ্বেগ জানিয়েছেন কুড়িগ্রাম জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা। 

কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান বিপ্লব বলেন, জুয়েল একজন ভাল ছেলে। তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে ঘটনাটি খুব দুঃখজনক। এই ঘটনার আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাই এবং হুমকি প্রদানকারীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাফুজুর রহমান লিখিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।