কিস্তির টাকা জোগাড় করতে না পেরে আত্মহত্যা!

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে কিস্তির টাকা জোগাড় করতে না পেরে এক দিনমজুর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে তেলিগাতী ইউনিয়নের চোমরা গ্রামের সৈয়দ আলী শেখের বাগান থেকে উদ্ধার করা হয় প্রতিবেশী আবুলয়াল শেখের (৬০) ঝুলন্ত মরদেহ।

বিভিন্ন এনজিওর কিস্তির টাকা জোগাড় করতে না পেরে সে আত্মহত্যা করেছে বলে অনেকে দাবি করেছেন। আবুল হোসেনকে আশা, ব্র্যাক ও গ্রামীণ ব্যাংককে প্রতি সপ্তাহে সাড়ে ৩ হজার টাকা কিস্তি দিতে হয়। গতকালও তার একটি এনজিওর ১৬০০ টাকা কিস্তি দেওয়ার কথা ছিলো।

জানা গেছে, বুধবার সন্ধা থেকে নিখোঁজ হন ৫ সন্তানের জনক আবুয়াল হোসেন আবু। রাত ১০টার দিকে স্ত্রী, সন্তান ও প্রতিবেশীরা খোঁজ শুরু করেন। রাত ১টার দিকে দেখতে পান পাশের বাড়ির বাগানে গাছের সাথে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলে রয়েছে। খবর পেয়ে সকাল ৭টার দিকে পুলিশ স্থনীয়দের সহযোগীতায় আবুল হোসেনের ঝুলন্ত মরদেহ গাছ থেকে নামায়।

এ বিষয়ে আবুল হোসেনের স্ত্রী শেফালী বেগম কিছু বলতে রাজি হনিনি। তার ছেলে মো. নাজমুল শেখ বলেন, আমি বাড়ি ছিলাম না। আজ বাড়িএসে শুনি দেনার কারনে বাবা আত্মহত্যা করেছেন।

এ বিষয়ে থানার ওসি মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, কারো কোন সন্দেহ ও অভিযোগ না থাকায় পোষ্ট মরটেম ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।