বকশিস কম পেয়ে অক্সিজেন মাস্ক খুলে দেয়া ওয়ার্ডবয় গ্রেপ্তার

বকশিস কম দেওয়ায় অক্সিজেন মাস্ক খুলে স্কুল ছাত্রকে হত্যায় জড়িত আসাদুজ্জামান মীর ধলু (৪০) নামের সেই কর্মচারীকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছ।


বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের খন্ডকালীন এ কর্মচারিকে বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকার আবদুল্লাহপুর থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১২ বগুড়া স্পেশাল কোম্পানীর একটি দল।


কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার সোহরাব হোসেন এসব তথ্য জানান।


তিনি বলেন, ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে ঘটনার ব্যাপারে বিস্তারিত বলা হবে।


গত মঙ্গলবার রাতে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে মুখ থেকে অক্সিজেন মাস্ক খুলে নেয়ার পর বিকাশ চন্দ্র কর্মকার নামের এক রোগী মারা যায় বলে তার স্বজনদের অভিযোগ।


নিহতের স্বজনরা জানান, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বিশু চন্দ্র কর্মকারের ছেলে বিকাশ চন্দ্র কর্মকার মোটরসাইকেলের ধাক্কায় গুরুতর আহত হলে তাকে মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালে আনা হয়। জরুরি বিভাগ থেকে মাথায় ব্যান্ডেজ এবং মুখে অক্সিজেনের নল দিয়ে বিকাশকে ট্রলিতে করে নেয়া হয় হাসপাতালের তৃতীয় তলায় সার্জারি বিভাগে। সেখানে মেঝেতে বিকাশকে নামিয়ে দেয়ার পর ট্রলি বহনকারী ওয়ার্ডবয় দুলু বিকাশের বাবার কাছে ২শ’ টাকা বকশিশ চান। আর্থিক সঙ্কটের কারণে বিকাশের বাবা তাকে ১৫০ টাকা দিলেও দুলু বাকি ৫০ টাকার জন্য চাপাচাপি করতে থাকে। এক পর্যায়ে বাকি টাকা না পেয়ে ওয়ার্ডের মেঝেতে রাখা বিকাশের নাক থেকে অক্সিজেনের নল খুলে দেয় দুলু।


হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাক্তার আবদুল ওয়াদুদ জানান, দুলু হাসপাতালের নিয়মিত কর্মচারী নয়। দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে কিছু লোক নেয়া হয় মাঝে মাঝে। দুলু সেভাবেই কাজ করে থাকে হাসপাতালে। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে।