বগুড়ায় পরীক্ষা দিয়ে ফেরার পথে ধর্ষণের শিকার কিশোরী

বগুড়ার শিবগঞ্জে পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে শিবগঞ্জ থানায় খায়রুল ইসলাম (২৮) এর বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। খায়রুল ইসলাম পৌর এলাকার সুলতানপুর নয়াপাড়া গ্রামের রাজমিস্ত্রী আশরাফুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শিবগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী (১৪) গত বুধবার সকালে স্কুলে বার্ষিক পরীক্ষা দিয়ে দুপুর ১২টায় বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব পরিচিত খায়রুল ইসলাম তাকে স্কুলের সামনে তাদের ভাড়া করা বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। এ সময় বাড়িতে তার স্ত্রী ও সন্তানরা ছিল না। এই সুযোগে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে খায়রুল ওই ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে সন্ধ্যায় খায়রুল তার সহযোগী কয়েক জনকে সঙ্গে নিয়ে দহিলা ঈদ মাঠ এলাকায় তাকে ফেলে পালিয়ে যায়।

পরে ওই কিশোরী বাড়ী ফিরে পরিবারের লোকজনকে ধর্ষণের বিষয়টি জানালে তার বা বাদী হয়ে বা থানায় এসে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে খাইরল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। আসামিকে ধরতে গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ভুক্তভোগীর শারীরিক পরীক্ষার জন্য বগুড়ার শহীদ জিয়াউর মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।