মোরেলগঞ্জে ষ্টেডিয়াম ভবন যেন মরণফাঁদ

৪২ বছর আগে নির্মিত বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার ষ্টেডিয়াম ভবনটি এখন বয়সের ভারে ন্যূব্জ। যে কোন সময় ভেঙে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।


সুস্থ ও সমৃদ্ধশীল জাতি গঠনের লক্ষ্যে ১৯৮০ সালে ১৪ জানুয়ারী এ ভবনের উদ্ধোধন করা হয়। তৎকালীন খুলনা জেলা প্রশাসক এম নূরুল ইসলাম মোরেলগঞ্জ সদরের এ সি লাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ চত্বরে এ ভবনটির উদ্ধোধন করেন। এ ভবন নির্মানের পাশাপাশি দর্শকদের বসার জন্য মাঠের চারদিকে ইট সিমেন্টর বেঞ্চ তৈরী করা হয়েছিল।


আন্তঃজেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন খেলাধুলার সময় খেলোয়াড়রা এ ভবনটি ব্যবহার করত। এছাড়াও আন্তঃস্কুল-মাদ্রাসার নানা অনুষ্ঠান ও খেলাধুলায় এ মাঠ ও ষ্টেডিয়াম ব্যবহৃত হত। কিছুদিন ব্যায়ামাগার হিসেবেও ভবনটি ব্যবহার করা হয়েছে। কিন্তু কালের বিবর্তনে ষ্টেডিয়াম ভবনটি এখন ব্যবহারের সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। 


তাও প্রায় ২ যুগের বেশি সময় ধরে এ ভবনটি ব্যবহৃত হচ্ছে না। ভবনের দরজা-জানালা, গ্রীল সব যাবতীয় মালামাল ক্রমান্বয়ে বেহাত হয়ে গেছে। কোন পলেস্তরা নাই। ভবনের আশ-পাশ অনেকে ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করছে। ষ্টেডিয়ামের চারপাশের সেই বেঞ্চগুলোও নেই।


উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজাম জানান, শরীরিক ও মানসিক বিকাশে খেলাধুলার বিকল্প নেই। তাই এ ষ্টেডিয়াম ভবনটি পুনঃমেরামত একান্ত প্রয়োজন।


উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বিষয়টি দেখে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে।