ট্রেনের টিকেট তিন ঘণ্টায় শেষ, যাত্রীদের ক্ষোভ

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে শুরু হয়েছে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি। শুক্রবার (১ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে এই টিকেট বিক্রি শুরু হয়। এদিন দেয়া হয়েছে ৫ জুলাইয়ের টিকেট। তবে টিকেট বিক্রির প্রথম দিনেই তিন ঘণ্টার মধ্যে প্রায় সব টিকেট শেষ হয়ে যায়। এমনটিই অভিযোগ করেছেন টিকেট প্রত্যাশীরা। তারা বলছেন, প্রতি লাইনের প্রথম কিছু লোক টিকেট পেয়েছে। বাকিরা আর পায়নি।


রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে গেলে দেখা যায়, টিকেট পেতে বৃহস্পতিবার রাত থেকেই কাউন্টারে দাঁড়িয়েছেন টিকেট প্রত্যাশীরা।


রাজধানীর গেন্ডারিয়া থেকে আসা মো. মহিউদ্দিন বলেন, গতকাল রাত ১০টায় এসে লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। শুক্রবার বেলা ১১টায় যখন কাউন্টারের ঠিক কাছে আসলাম তখনই শুনি টিকেট শেষ। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েও টিকেট পেলাম না।


আরেক টিকেটপ্রত্যাশীবলেন, গতকাল রাত ১০টায় এসে লাইনে দাঁড়িয়েছি।। দিনাজপুরের টিকেট আগেই শেষ হয়ে গেছে। আগামীকালের জন্য এখন অপেক্ষা করতে হবে।


ঢাকায় ছয় স্টেশন এবং গাজীপুরের জয়দেবপুর স্টেশনে পাওয়া যাচ্ছে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট। এর মধ্যে ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে উত্তরাঞ্চলগামী আন্তঃনগর ট্রেনের টিকেট মিলছে। আর রাজশাহী ও খুলনাগামী ট্রেনের টিকেট পাওয়া যাচ্ছে কমলাপুর শহরতলী প্ল্যাটফর্ম থেকে।


ঢাকা বিমানবন্দর থেকে চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীগামী সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকেট পাওয়া যাচ্ছে। তেজগাঁও রেলস্টেশনে পাওয়া যাচ্ছে ময়মনসিংহ, জামালপুর ও দেয়ানগঞ্জগামী ট্রেনের টিকেট।


এছাড়া, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনে মিলছে মোহনগঞ্জগামী মোহনগঞ্জ ও হাওর এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকেট। ফুলবাড়িয়া রেলস্টেশন থেকে সিলেট ও কিশোরগঞ্জগামী ট্রেনের টিকেট পাওয়া যাচ্ছে।


১ জুলাই দেয়া হয়েছে ৫ জুলাইয়ের টিকেট। ২ জুলাই মিলবে ৬ জুলাইয়ের টিকেট। ৩ জুলাই দেয়া হবে ৭ জুলাইয়ের টিকেট। ৪ জুলাই পাওয়া যাবে ৮ জুলাইয়ের টিকেট এবং ৫ জুলাই দেয়া হবে ৯ জুলাইয়ের টিকেট।


এছাড়া, ফিরতি টিকেট বিক্রি শুরু হবে ৭ জুলাই থেকে। ওইদিন ১১ জুলাইয়ের টিকেট বিক্রি হবে।