‘গাল্লি বয়’ জুটিকে ক্যামেরা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

ক্ষুদে গায়ক রানা মৃধা ও তার আবিষ্কারক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তবীব মাহমুদকে অত্যাধুনিক ভিডিও ক্যামেরা উপহার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি রানার পড়াশোনার খরচও বহন করা হবে সরকারের পক্ষ থেকে।

আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ‘ডিজিটাল ডিভাইস ও ইনোভেশন এক্সপো’তে এই তথ্য জানান।

১৬ অক্টোবরের সেই আয়োজনে প্রথমবারের মতো কনসার্টেও অংশ নেন বাংলা হিপহপ গানের নতুন এ জুটি।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ওদের প্রথম গানটি দেখে আমি তবীবকে প্রশ্ন করি, এটি সাদাকালো কেন? ওর উত্তর ছিল, তার কাছে যে ক্যামেরা ছিল এর রেজ্যুলেশন এতটাই কম যে, ভিডিওটি কোয়ালিটি খারাপ হয়ে গিয়েছিল। তাই সাদাকালো করে দিতে হয়েছে। তবে আমি বলব, এরপর থেকে তাদের গানের কোয়ালিটি আরও ভালো হবে। অল্প দিনের মধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আমরা একটি অত্যাধুনিক ক্যামেরা রানা ও তবীবকে উপহার করব।

তিনি আরও বলেন, রানার মতো আর কোনও পথশিশু পথে যেন না থাকে এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কাজ করছেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে রানার পড়াশোনার সব খরচ আমরা বহন করব। ওর যা লাগে সব কিছু আমরা দেখব।

‘গাল্লিবয়’ রানার উত্থান যেন রূপকথার রাজকুমারের মতোই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঘুরে বেড়ানো আর দশটা পথশিশুর মতোই ছিল রানার জীবন। তবে একটি গানের সুবাদে সব পাল্টে গেছে। এখন পুরো বাংলাদেশ তাকে চেনে ‘গাল্লি বয়’ হিসেবে।