ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন চঞ্চল চৌধুরী

‘হাওয়া’ ছবির শুটিংয়ে গিয়ে সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন চঞ্চল চৌধুরীসহ পুরো ছবির স্টাফরা। ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ যতই শক্তিশালী হচ্ছে তাদের মধ্যে আতঙ্ক ততই বেড়ে চলেছে।

এদিকে শুধু ‘হাওয়া’ ছবির কলাকুশলীরা নন, টেকনাফের দ্বীপ সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছে ১২০০ পর্যটক। প্রশাসন বলছে, যারা আটকে পড়েছেন তারা সবাই নিরাপদে আছে।

আজ রাত ৮টা থেকে ৯টার মধ্যে শতাধিক কিলোমিটার বেগে উপখূলীয় এলাকায় আছড়ে পড়তে পারে বুলবুল। এ কারণে দেশের ১৩টি জেলাকে ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনা করা হয়েছে। তার মধ্যে একটি কক্সবাজার।

ছবির পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন বলেন, বাতাসের আওয়াজ আর সাগরের গর্জনে অনেকেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। যেহেতু প্রশাসনের কঠোর নির্দেশ, তাই কেউ বাইরে বের হচ্ছে না। সবাই হোটেলের ভেতরেই আছেন। সঙ্গে পর্যাপ্ত খাবার আছে। কোনো সমস্যা হচ্ছে না। সেন্ট মার্টিনের রাস্তাঘাটও জনমানব শূন্য। সবাই নিরাপদ স্থানে চলে গেছে।

চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ঢাকায় পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে। এখন হোটেলের ভেতরে আড্ডা দিয়ে, গল্প করে সবাই সময় কাটাচ্ছেন।

কক্সবাজার ও সেন্ট মার্টিন এলাকা ঘিরে ‘হাওয়া’ ছবির শুটিং হচ্ছে। সমুদ্রের জলের সঙ্গে মিশে যাওয়া জেলেদের গল্প। জলের গল্প। মাছ ধরার ট্রলারকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে কাহিনি। এ কারণেই গভীর সাগরে গিয়ে প্রতিদিন তাঁদের শুটিং করতে হচ্ছে।