কণিকার করোনা সংক্রামন নিয়ে নাটকীয় মোড়, রিপোর্ট অদলবদলের দাবি

‘বেবিডল’ খ‌্যাত গায়িকা কণিকা কাপুর আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। এ খবর নতুন নয়। ইতিমধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করেছে। যার জেরে ছ’মাসের জেলও হতে পারে এই গায়িকার।

কিন্তু গোটা ঘটনা একেবারে নয়া মোড় নিয়েছে রবিবার। কারণ এদিনই এই গায়িকার পরিবারের লোকজন অভিযোগ তুলেছেন, যে রিপোর্টের ভিত্তিতে গায়িকাকে ‘কোভিড ১৯’ পজিটিভ বলে সাব‌্যস্ত করা হয়েছে, তাতে গরমিল আছে।

তাঁদের দাবি, যে স্বাস্থ‌্য রিপোর্টে কণিকাকে করোনা পজিটিভ বলে সাব‌্যস্ত করা হয়েছে, সেখানে তাঁর বয়স লেখা আছে ২৮ বছর। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে কণিকার বয়স ৪১ বছর। শুধু তাই নয়। রিপোর্টে গায়িকার লিঙ্গও ভুল উল্লেখ আছে। ‘মহিলা’-র জায়গায় ‘পুরুষ’ লেখা আছে। আর এই তথ‌্য সামনে রেখেই গায়িকার পরিবার দাবি করেছে, হতে পারে এই রিপোর্ট গায়িকার নয়। বরং অন‌্য কারও। কোনওভাবে রিপোর্ট অদলবদল হয়ে থাকতে পারে। বর্তমানে লখনউয়ের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বিদেশ থেকে ফেরা সত্ত্বেও নির্দেশ মেনে নিজেকে ‘কোয়ারেন্টাইনে’ রাখেননি কণিকা। উলটে অসুস্থ থাকা সত্ত্বেও নৈশভোজে যোগ দেন। এরপরই যখন গায়িকার করোনা সংক্রমণের কথা সামনে আসে, তখন চারদিকে হইচই পড়ে যায়। অনেকেই কণিকার বিরুদ্ধে দায়িত্বজ্ঞানহীনতার অভিযোগ তোলেন।