ধর্ষণের অভিযোগে পপ তারকার ১৩ বছরের কারাদণ্ড

ধর্ষণের অভিযোগে জনপ্রিয় পপ তারকা ক্রিস উ কে ১৩ বছরের জেল দিয়েছে চীন। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বেইজিংয়ের একটি আদালত ক্রিসের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে এই কারাদণ্ড দেন। একই দিন কর ফাঁকির জন্য ক্রিসকে প্রায় ৮৩ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করে।


জানা যায়, ৩২ বছর বয়সী ক্রিস চীন ও কানাডা দু’দেশেরই নাগরিক। চীনে এক অপ্রাপ্তবয়স্ক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে এই শাস্তি দেওয়া হয়। এই তারকার বিরুদ্ধে এর আগেও ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল।


গত বছর এক শিক্ষার্থী উ এর বিরুদ্ধে ডেটিংয়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ করলে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর একে একে ২৪ জন উ এর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স।


অভিযোগকারী ১৭ বছরের তরুণী জানায়, ক্রিস উর সঙ্গে তার পরিচয় হওয়ার পর তিনি তাকে এক পার্টিতে আমন্ত্রণ জানান। সেখানে ক্রিস তাকে জোর করে মদ্যপান করান এবং পরে তাকে যৌন নির্যাতন করেন।


বেইজিংয়ের চাওয়াং জেলার আদালত বলছে, ওই তরুণী ছাড়াও ২০২০ সালে শেষের দিকে আরও তিন নারীকে মাদক সেবন করিয়ে ধর্ষণ করার সত্যতা উঠে এসেছে তদন্তে। ধর্ষণের অভিযোগে গত বছর আগস্টে তাকে গ্রেফতার করে চীনা পুলিশ। তখন তিনি এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন।


উল্লেখ্য, কানাডার কে-পপ বয়ব্যান্ড এক্সো ব্র্যান্ডের সদস্য ছিলেন ক্রিস উ। ২০১৪ সালে একক ক্যারিয়ার গড়ার লক্ষ্যে ব্যান্ড ছেড়ে চীনে চলে আসেন ক্রিস উ। এখানে এসে গায়ক, অভিনেতা, মডেল হিসেবেও সফল ছিলেন ক্রিস উ। সূত্র: সিএনএন ও রয়টার্স