এক ক্লাবের ৩৮ জন করোনা আক্রান্ত

ব্রাজিলে ভয়ঙ্কর আকারে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। কিন্তু পরিস্থিতি খারাপ হওয়া সত্ত্বেও দেশটিতে ঘরোয়া ফুটবল মৌসুমের বাকি সময়ের খেলা ফের শুরু হচ্ছে।

ফের মৌসুম শুরুর আগে ব্রাজিলের ক্লাবগুলোর খেলোয়াড়দের করোনা পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর সেখানেই চমকে দেওয়া তথ্য বেরিয়ে এসেছে। পরীক্ষায় ব্রাজিলিয়ান চ্যাম্পিয়ন ফ্ল্যামেঙ্গোর ৩৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে।

২০১৯ কোপা লিবার্তাদোরেস জয়ী ক্লাবটির খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ মোট ২৯৩ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। এর মধ্যে মূল দলের ৩ জন খেলোয়াড়ের দেহে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

অবাক করা ব্যাপার হলো, ফ্ল্যামেঙ্গোর করোনা আক্রান্ত ৩৮ জনের শরীরে কোনো উপসর্গ ছিল না। এখন সবাইকে পরিবারসহ ফের কোয়রেন্টিনে যেতে হবে। কোয়ারেন্টিন শেষ হলে ফের পরীক্ষা করানো হবে। তখন যদি নেগেটিভ আসে তাহলেই কেবল কাজে যোগ দিতে পারবে।

এর আগে একই ক্লাবের দুই খেলোয়াড়সহ মোট ১১ জন আক্রান্ত হয়েছিলেন। ক্লাবের পর্তুগিজ ম্যানেজার জেসুসও গত মার্চে আক্রান্ত হয়েছিলেন। এক সপ্তাহ চিকিৎসা শেষে তিনি সুস্থ হয়ে ফিরেছেন।

ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে অষ্টম স্থানে আছে। ওয়ার্ল্ডোমিটার'র সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১ লাখ ৩৬ হাজার এবং মৃতের সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।