করোনা থেকে বাঁচতে যে খাবার পরিহার করবেন

অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাস করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের মৃত্যুহার অনেকটাই বাড়িয়ে দিয়েছে। তার অন্যতম দৃষ্টান্ত আমেরিকা ও ইউরোপ। তাই খাদ্যাভাসে ‘আলট্রা প্রোসেসড ফুড’ না রাখার অনুরোধ চিকিৎসকদের।

চিকিৎসক অসীম মালহোত্রা যিনি যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত তিনি প্রাণঘাতী করোনা থেকে থেকে বাঁচতে খাদ্যাভ্যাসের উপর নজরদানের পরামর্শ দিয়েছেন।

তাঁর মতে, অতিরিক্ত ওজন ও ওবেসিটি শরীরের রোগ প্রতিরোধক মাত্রা কমিয়ে করোনা বৃদ্ধির প্রবণতাকে ত্বরান্বিত করছে। অস্বাস্থ্যকর জীবনশৈলীর ভিত্তিতে তৈরি রোগভোগের সংখ্যা এমনিতেই ভারতে কম নয়। এই জীবনশৈলী ডেকে আনছে টাইপ-২ ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদয়ঘটিত রোগ। এই তিন রোগই, যার পিছনে অন্যতম কারণ অতিরিক্ত মেদ ও ওজন, মৃত্যুর হার বাড়ার পিছনে অন্যতম কারণ বলে জানিয়েছেন তিনি। আমেরিকা ও যুক্তরাষ্ট্রে যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছেন, দেখা গিয়েছে তাঁদের ৬০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্কই অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাস ও জীবনশৈলীর দরুন উল্লিখিত রোগগুলির শিকার ছিলেন।

আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান পত্রিকা ‘নেচার’-এ প্রকাশিত এক রিপোর্ট জানা যাচ্ছে, টাইপ-২ ডায়াবেটিস ও মেটাবলিক সিনড্রমে আক্রান্তদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সম্ভাবনা সুস্থ মানুষের তুলনায় ১০ গুণ বেশি। ডা. মালহোত্রা জানাচ্ছেন, এই রোগগুলির জন্য ব্যবহৃত ওষুধের রোগ প্রতিরোধক বা মৃত্যুহার কমানোর ক্ষমতা যৎসামান্যই। অর্থাৎ, এগুলো কোনও স্থায়ী সমাধান নয়। সুস্থ খাদ্যাভ্যাস ও জীবনপদ্ধতিই রোগের আসল দাওয়াই। তাই আলট্রা প্রোসেসড প্যাকেটেড খাদ্য পরিহার করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। কারণ এতে অধিক পরিমাণে শর্করা, স্টার্চ, অস্বাস্থ্যকর তেল থাকে। থাকে অ্যাডিটিভিস ও প্রিজার্ভেটিভস। যা অবশ্য বর্জনীয়। পরিবর্তে যথেষ্ট শাকসবজ, ফলমূল, ডিম, মাছ, মাংস, এমনকী প্রয়োজনে রেড মিটও খাওয়ার নিদান দিয়েছেন তিনি।