রাসেলকে বাকি ৪৫ লাখ টাকা কিস্তিতে দেওয়ার নির্দেশ

বাস চাপায় পা হারানো প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারকে মাসিক পাঁচ লাখ টাকা কিস্তিতে ক্ষতিপূরণের বাকি ৪৫ লাখ টাকা পরিশোধ করতে গ্রিনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (২৬ জুন) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালত বলেন, গ্রীনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে জরিমানার বাকি ৪৫ লাখ টাকা রাসেলকে দিতে হবে। গ্রীনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ প্রতি মাসে পাঁচ লাখ টাকা করে রাসেলকে দেবে। প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে ৫ লাখ টাকা পরিশোধ করে সে বিষয়ে ওই মাসের ১৫ তারিখ আদালতকে তা জানাতে হবে।

নির্ধারিত সময়ে ক্ষতিপূরণের অর্থ পরিশোধ না করায় উষ্মা প্রকাশ করে আদালত মালিক ও সরকারের উদ্দেশ্যে বলে, যে লোকটা আদালতের আদেশ লঙ্ঘনের জন্য ফন্দি-ফিকির করে, সরকার তাকে কীভাবে পেট্রোনাইজ করে আমরা দেখব।

আদালতে মঙ্গলবার গ্রিনলাইন পরিবহনের পক্ষে আইনজীবী অজি উল্লাহ ও রিট আবেদনকারী পক্ষের আইনজীবী খোন্দকার শামসুল হক রেজা শুনানি করেন।

গত বছরের ২৮ এপ্রিল যাত্রাবাড়ীর মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে গ্রিনলাইন পরিবহনের একটি বাস চাপা দেয় প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারকে। তাকে বাঁচাতে একটি পা কেটে ফেলতে বাধ্য হন চিকিৎসকরা।

রাসেল সরকারের জন্য ক্ষতিপূরণ চেয়ে সাবেক সাংসদ উম্মে কুলসুমের করা এক রিট আবেদনে চিকিৎসা খরচ বাদেও ৫০ লাখ টাকা দিতে গ্রিনলাইনকে নির্দেশ দেয় হাই কোর্ট। পরে আপিল বিভাগেও ওই আদেশ বহাল থাকে।

এরপর গত ১০ এপ্রিল রাসেল সরকারকে ৫ লাখ টাকা পরিশোধ করে গ্রিনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ বাকি ৪৫ লাখ টাকা পরিশোধের জন্য এক মাস সময় পায়।