ওবায়দুল কাদের বললেন যানজট নেই

এবার ঈদযাত্রায় যানবাহন ধীরগতিতে চললেও কোথাও যানজট নেই বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (১০ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, এবার ঈদে সড়ক, মহাসড়কের কোথাও যানজট নেই। তবে যানবাহন ধীরগতিতে চলছে। যানবাহনগুলো ধীরগতিতে আসছে বলে সময় লাগছে। এটাই বাস্তবতা। এতে যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই।

এবারের ঈদযাত্রায় পথে পথেই ভোগান্তির শিকার হচ্ছে ঘরমুখো মানুষ। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় তো আছেই সেইসাথে লেগে আছে যানজট। মহাখালী বাস টার্মিনালে গতকাল রাত থেকেই মানুষ অপেক্ষা করলেও ঠিক সময়ে বাস ছেড়ে যাচ্ছে না। কোনো বাস ১০ ঘণ্টা, আবার কোনোটি ১২ ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ছে। একই অবস্থা সায়েদাবাদ ও মহাখালী বাস টার্মিনালেও।

যাঁরা আগে থেকে টিকেট কেটে রাখেননি, তাঁদের কাছ থেকে বেশি মূল্যে টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ভাড়া নেয়া হচ্ছে তিন থেকে পাঁচ গুণ বেশি। শনিবার বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের উত্তরবঙ্গমুখী লেনে অন্তত ২২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ রুটে যানবাহনের বাড়তি চাপে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। যানজটের কারণে প্রায় ৭ কিলোমিটার এলাকা পায়ে হেঁটে ঘাটে পৌঁছেছেন অনেক যাত্রী। দ্বিতীয় দিনেও যাত্রী ও যানবাহনের চাপ রয়েছে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌ রুটে।

মহাখালী বাস টার্মিনাল পরিদর্শনের সময় বাস কাউন্টারে অপেক্ষমাণ যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন সেতুমন্ত্রী। যাত্রীদের বেশির ভাগই সময়মতো বাস না ছাড়ার অভিযোগ করেন। যাত্রীরা বলেন, বাস টার্মিনালে বাসের জন্য কয়েক ঘণ্টা করে অপেক্ষা করতে হচ্ছে। এতে শিশুদের নিয়ে দুর্ভোগে পড়েছেন তাঁরা।

সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, ঈদে প্রচুর লোক বাড়ি যাচ্ছে। মহাসড়কগুলোর মধ্যে চট্টগ্রাম ও সিলেট মহাসড়কে যাতায়াতে কোনো সমস্যা হচ্ছে না। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) পর্যবেক্ষণ সেল থেকে এ তথ্য জেনেছি। বেশি সমস্যা হচ্ছে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে উত্তরাঞ্চলগামী যানবাহনগুলোর ক্ষেত্রে। এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপারে কড্ডা মোড় পর্যন্ত গাড়ি খুব ধীরগতিতে চলছে। মহাসড়কে ধীরগতির কিছু বাহন চলছে। মহাসড়কে নিয়মিত চলাচল করে না—এমন গাড়িও ঈদে নেমে পড়েছে। মহাসড়কে উঠে এগুলোর ইঞ্জিনের স্টার্ট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, দুর্ঘটনায় পড়ছে। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়িগুলো সরানো পর্যন্ত অন্য যানবাহনের গতি কমে আসছে।

ওবায়দুল কাদের দাবি করেন, এবার রাস্তায় কোথাও ভাঙাচোরা নেই। সেসব মেরামত করা হয়েছে। বাস র‍্যাপিড ট্রানজিটের (বিআরটি) কাজ চলায়, সেদিকে সমস্যা হওয়ার কথা ছিল। তবে যত সমস্যা হবে বলে মনে করা হয়েছিল, তার চেয়ে অনেক কম হচ্ছে।

ফেরিঘাটে ভোগান্তির বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বৃষ্টি ও নদীতে স্রোতের কারণে ফেরি পারাপারে দেরি হচ্ছে। এ কারণে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ফেরিঘাটগুলোয় সমস্যা হচ্ছে।