দেশে চাহিদার তুলনায় অনেক বেশি লবণ মজুত রয়েছে: বিসিক

বর্তমানে দেশে চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি লবণ মজুত রয়েছে। সম্প্রতি লবণ নিয়ে একটি অসাধু চক্র বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে মুনাফা লোটার অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)।

এ বিষয়ে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে বিসিক। এমনকি সংকট হওয়ারও কোনও সম্ভাবনা নেই জানিয়ে এরইমধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনকে অবহিত করানোর জন্য বিসিকের জেলা কার্যালয়গুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিসিক জানায়, লবণ উৎপাদনে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের লবণ মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি রেকর্ড পরিমাণ ১৮.২৪ লাখ মেট্রিক টন লবণ উৎপাদিত হয়েছে। গত ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত দেশে লবণের মজুতের পরিমাণ ছিল সাড়ে ছয় লাখ মেট্রিক টন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমানে দেশে চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি লবণ মিলগুলোতে মজুত রয়েছে। তবুও একটা মহল লবণ ঘাটতি সংক্রান্ত বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়াচ্ছে। প্রকৃতপক্ষে বর্তমানে দেশে লবণের কোনও সংকট নেই, সারাদেশের প্রশাসনকে সেটি জানানো হয়েছে।

লবণ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ ও পরিবেশনের জন্য বিসিকের প্রধান কার্যালয়ে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের নম্বর ০২-৯৫৭৩৫০৫। যে কেউ এই নম্বরে কল করে তথ্য জানতে পারবেন।