পেইনকে ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরানোর ষড়যন্ত্রে নেমেছেন স্মিথ!

অস্ট্রেলিয়ারই প্রাক্তন অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেলের বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয়েছে। তার দাবি, টিম পেইনকে অধিনায়কত্ব থেকে সরানোর ষড়যন্ত্র করছেন স্টিভ স্মিথ।

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্মিথ। পেইনের আগে তার কাধেই ছিল দল সামলানোর ভার। তবে ২০১৮ সালে বল টেম্পারিংয়ের দায়ে ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা পেলে হারাতে হয় তার ক্যাপ্টেন্সি।

তবে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে খেলায় ফিরেছেন স্মিথ। কিন্তু অধিনায়কত্ব ফিরে পাননি। তাকে দেখা গেছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ফিল্ডিং সেট করতে। সেটা নিয়েই চ্যাপেলের আপত্তি।

এক রেডিও চ্যানেলে চ্যাপেল মন্তব্য করেন, আমার একটা ঘটনা মোটেই ভালো লাগেনি। দেখলাম, স্মিথ নিজেই কয়েক জন ফিল্ডারের জায়গা বদল করছে।

ঠিক কী হয়েছিল? চ্যাপেলের কথায়, দেখলাম, পেইনের সঙ্গে কথা বলছে স্মিথ। মনে হল, অফসাইডে এক জন ফিল্ডারকে সরানোর কথা বলছে। এ-ও মনে হল, স্মিথ যত দূরে ফিল্ডারকে সরাতে চেয়েছিল, তত দূরে সরায়নি পেইন। এর পরে স্মিথ নিজেই ওই ফিল্ডারকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। যেটা মোটেই ঠিক কাজ নয়।

চ্যাপেল আরও অভিযোগ করেছেন, স্মিথ ‘হোয়াইট অ্যান্টিং’ করছিলেন পেইনকে। ‘হোয়াইট অ্যান্টিং’ শব্দটা অস্ট্রেলীয়রা বিশেষ করে ব্যবহার করেন একটা ব্যাপার বোঝাতে। সেটা হল, কাউকে যখন ভিতরে ভিতরে পদচ্যুত করার চেষ্টা করা হয়। এ ক্ষেত্রে চ্যাপেলের ইঙ্গিত, পেইনকে হয়তো নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার একটা চেষ্টা শুরু হয়েছে।

তবে স্মিথ বিতর্কের ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি। চুপ আছেন পেইনও। তবে এ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় চরম বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।