ফুচকা বিক্রেতা থেকে বিশ্বকাপ দলে ভারতীয় ক্রিকেটার

অদম্য ইচ্ছা শক্তি আর কঠোর অধ্যাবসায়ের মাধ্যমে যে সবকিছুই সম্ভব তার প্রমাণ রাখলেন ভারতের তরুণ ক্রিকেটার যশস্বী জসওয়াল। ক্রিকেটের প্রতি তার ভালোবাসা ছিল অসীম। কিন্তু পরিবারের জন্য নামতে হয়েছিল ফুচকা ব্যবসায়। তবে ক্রিকেট থেকে কখনো দূরে থাকতে পারেননি।

ফুচকা বিক্রির পর যেটুকু সময় পেতেন তা ব্যবহার করতেন ক্রিকেটে। ফলও পেয়েছেন হাতেনাতে। দারুণ পারফর্ম দেখিয়ে ১৭ বছরের এই তরুণ জায়গা করে নিয়েছেন ভারতের যুব বিশ্বকাপের দলে।

জন্ম উত্তরপ্রদেশের সুরিয়ায় হলেও ১১ বছর বয়সে বাবার হাত ধরে বাণিজ্য নগরীতে চলে আসেন যশস্বী। পরিবারের অসচ্ছলতার কারণে বাবার সাথে বিক্রি করতেন ফুচকা। পেশায় ফুচকা বিক্রেতা হলেও নিয়মিত ক্রিকেট প্র্যাকটিস করেছেন যশস্বী। আর প্র্যাকটিসের পরে প্রায় তিন বছর তাঁবুতে রাত কাটাতে হয়েছে দরিদ্র ক্রিকেটারটিকে।

আজাদ ময়দানে রাম লীলার সময় ফুচকা বিক্রি করে কিছু টাকা অপার্জন করতো সে। যে সামান্য অর্থ তার হাতে থাকতো সেটি ব্যয় করতেন ক্রিকেটের পেছনে। ফুচকা বিক্রেতা এই ছেলেটি এবার বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের জার্সিতে মাঠে নামবে।

১৭ বছরের যশস্বী মুম্বইয়ের সিনিয়র দলের হয়ে একটি মাত্র ম্যাচ খেলেছেন। গত মৌসুমে রঞ্জি ট্রফিতে ছত্রিশগড়ের বিরুদ্ধে প্রথমশ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। তবে এখনও পর্যন্ত ন’টি লিস্ট-এ ম্যাচ খেলেছে যশস্বী। চলতি বছর বিজয় হাজারে ট্রফিতে দুরন্ত পারফরম্যান্স করে নির্বাচকদের নজর কাড়েন।

ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধে ১৫৪ বলে ২০৩ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে প্রতিভার পরিচয় রাখে মুম্বাইয়ের বাঁ-হাতি। ইনিংসে ১২টি ছক্কা ও ১৭টি বাউন্ডারি মারে কিশোর এই ক্রিকেটারটি। যশস্বীকে ইতিমধ্যেই বাঁ-হাতি বিরাট কোহলি বলে ডাকা হচ্ছে।

নতুন বছরের শুরুতেই দক্ষিণ আফ্রিকায় বসছে যুব বিশ্বকাপের আসর। ১৩তম অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হবে ১৭ জানুয়ারি, ২০২০। এখানেই দেখা যাবে তাকে।