'ঘরকেই মসজিদ বানিয়ে ফেলুন'

করোনাভাইরাসের বিস্তার রুখতে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছিল ভারত। তবে বহু মানুষ লকডাউন উপেক্ষা করে বাড়ি থেকে বের হচ্ছেন প্রায় রোজই। এমনটা করলে যে সমূহ বিপদ অপেক্ষা করছে সে কথা প্রশাসনের তরফে বারবার বোঝানো হচ্ছে। তবুও হুঁশ ফিরছে না কিছু দায়িত্বজ্ঞানহীন মানুষের।

তাঁরা নিজেদের এবং অন্যদেরও ঝুঁকির মধ্যে ফেলছেন। ঘরবন্দি থাকায় মুসলিম সম্প্রদায়ের বহু মানুষ মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে পারছেন না। তবে বেশ কিছু জায়গায় মুসলিম সম্প্রদায়ের কিছু মানুষ বাড়ির ছাদে ভিড় করে নামাজ পড়ছিলেন। এবার তাই সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে দিতে মাঠে নামলেন ইরফান পাঠান।

বাবার নামে মেহমুদ খান পাঠান চ্যারিটেবল ট্রাস্ট শুরু করেছিলেন ইরফান ও ইউসুফ পাঠান। সেই ট্রাস্টের মাধ্যমে করোনা মোকাবিলায় দুস্থ ও অসহায় মানুষদের জন্য দশ হাজার কেজি চাল ও ৭০০ কেজি আলু দান করেছিলেন পাঠান ভাতৃদ্বয়। শুধু তাই নয়, লোকজনকে সচেতনও করছেন তাঁরা।

ফেসবুকে পোস্ট করা একটি ভিডিও বার্তায় ভারতের প্রাক্তন তারকা বলেছেন, মসজিদে যাওয়া নিষেধ নয় এই সময়, এমনটা ভাববেন না।  বরং এটা ভাবুন, আমাদের ঘরটাকেই কীভাবে মসজিদ বানিয়ে নেওয়া যায়! আমাদের মতো আমাদের ঘরগুলোও এখন গুনাহগার। আসুন ঘরগুলোকেও শুদ্ধ করি আমরা সবাই মিলে। কিছুদিন ঘরেই নামাজ পড়ি আমরা সবাই মিলে। এই দুর্যোগের সময় কেটে গেলে আমরা আবার মসজিদে গিয়ে প্রার্থনা করব সবাই মিলে।