এক সন্তানের তিন বাবা!

ভারতে নবজাতক এক সন্তানের বাবা দাবি করেছেন তিনজন। এ নি ধুন্ধুমার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

এক প্রসূতিকে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানোর সময় এক যুবক পরিচয় দিয়েছিলেন, তিনি তাঁর স্বামী। শিশুর জন্মের পরে স্বভাবতই হাসপাতালের কর্মী থেকে চিকিৎসকেরা সবাই ওই যুবককেই শিশুর বাবা হিসাবে ধরে নিয়েছিলেন। কিন্তু বেলা গড়াতেই অন্য এক যুবক দাবি করেন যে তিনি ওই সদ্যোজাত শিশুর বাবা। ধন্ধ যখন চরমে তখন আরও এক যুবক এসে দাবি করে বসলেন, তিনিই ওই শিশুর বাবা! তিন দিনে আসা তিন বাবাকে নিয়ে হিমশিম খাওয়া হাসপাতাল শেষে পুলিশের দ্বারস্থ।

পরে আসা যুবক নিজের নাম হর্ষ ক্ষেত্রী বলে জানিয়েছেন পুলিশকে। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর বাড়ি নিউটাউনে। প্রথম ব্যক্তি দীপঙ্কর পুলিশের সামনে নিজের বিয়ের কাগজও দেখিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। দ্বিতীয় ব্যক্তিও পুলিশকে জানিয়েছেন, তিনিও বিয়ের সার্টিফিকেট দেখাতে পারবেন।

তবে প্রথম ব্যক্তি দীপঙ্কর পাল স্বপ্না মিত্র নামে ওই মহিলাকে নিজের স্ত্রী বলে পরিচয় দিয়ে ভর্তি করেন গাঙ্গুলিবাগানের একটি নামী বেসরকারি হাসপাতালে। সন্তানসম্ভবা ওই মহিলা রবিবার তাঁর সন্তানের জন্ম দেন।

অস্ত্রোপচার করে ওই মহিলার শিশুর জন্ম হয়েছে। মহিলাকে শিশুর বাবা সম্পর্কে প্রশ্ন করলেও তাঁর বয়ান নিয়েও রয়েছে যথেষ্ট ধোঁয়াশা। রোগীর শারীরিক অবস্থার কথা ভেবে পুলিশ এখনও তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেনি। মহিলার মা বলে পরিচয় দেওয়া প্রৌঢ়াও গোটা রহস্যে কোনও আলোকপাত করতে পারেননি।