চীন-পাকিস্তানকে রুখতে পরমাণু অস্ত্র বানাচ্ছে ভারত

ভারতের সাথে চীন আর পাকিস্তানের দ্বন্দ্ব নতুন কি নয়। প্রায়ই শোনা যায় ভারত ও পাকিস্তান সীমান্তে দুই দেশের সেনাদের সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ার খবর। তবে চীনের ব্যাপারে কিছুটা নমনীয় ভারত। সংঘর্ষ এড়িয়ে সুপার পাওয়ার দেশটির সাথে আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যা সমাধার করে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি।

তবে এবার চীনকে রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে ভারত। চীনকে লক্ষ্য করে গড়ে তোলা হচ্ছে ভারতের স্ট্র্যাটেজিক পরমাণু কর্মসূচি।

আগে এই কর্মসূচি পাকিস্তানকে লক্ষ্য করে গড়ে তোলা হলেও এখন এর লক্ষ্য চীনও। দুই দেশকে রুখতে বিপুল পরিমাণ পরমাণু অস্ত্র ভারত তৈরি করছে বলে একটি প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

ওয়াশিংটনের ফেডারেশন অব আমেরিকান সায়েন্টিস বা এফএএসের বিশেষজ্ঞ হ্যানস এম. ক্রিসটেনসেন এবং রবার্ট এস নোরিস এক গবেষণার রিপোর্টে এমনটাই জানিয়েছেন।

তাতে বলা হয়েছে, ১৯৮৭ সাল থেকে এই দুই গবেষক নিউক্লিয়ার নোটবুক প্রকাশ করছেন। কেউ কেউ বলেন, পরমাণু এবং অস্ত্র সংক্রান্ত বিষয়ে তাদের এসব নোটবুককে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য বলে গণ্য করা হয়।

ভারতীয় পরমাণু বাহিনী সম্পর্কে চলতি মাসে প্রকাশিত প্রতিবেদনে তারা বলেছেন, চীনের সব জায়গায় আঘাত হানার জন্য ভারতের মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চলে ঘাঁটি করা হবে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি পরবর্তী প্রজন্মের ক্ষেপণাস্ত্র। তাদের হিসাব অনুসারে, ভারতে প্লুটোনিয়াম উৎপাদন যা হয় তা দিয়ে দেড়শ থেকে দুশ পরমাণু বোমা তৈরি সম্ভব। এখনও পর্যন্ত ভারত ১২০ থেকে ১৩০টি পরমাণু বোমা তৈরির কাজ শেষ করেছে। ভারতের পরমাণু উপাদান উৎপাদনের সক্ষমতা নাটকীয়ভাবে বাড়ছে বলেও উল্লেখ করেন তারা।

গত কয়েকমাস ধরেই আরব সাগরে ভারত ও চীনের মধ্যে একটা চাপা উত্তেজনা চলছে। এরইমধ্যে এ খবর সে উত্তেজনাকে অনেকগুণ বাড়িয়ে দেবে বলে ধারণা বিশ্লেষকদের।